অনলাইন ডেস্ক : সূর্যের আলো ও আদ্রতায় করোনাভাইরাস দ্রুত মারা যায় বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের একদল বিজ্ঞানী। নতুন গবেষণার বিষয়টি গত বৃহস্পতিবার দেশটির এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেছেন।

দেশটির হোমল্যান্ড সিকিউরিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান উইলিয়াম ব্রায়ান হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সামনে গবেষণার ফল তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, সরকারের একদল বিজ্ঞানী পরীক্ষা করে দেখেছেন, অতিবেগুনি রশ্মি প্যাথোজেনের ওপর প্রভাব ফেলে।

‘তাই আশা করা যায়, গ্রীষ্মে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে আসবে।’

ব্রায়ান বলেন, আমাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পর্যবেক্ষণ হলো, সূর্যের আলো করোনাভাইরাসের ওপর পড়লে তা দ্রুত মরে যায়। কোনো বস্তুর ওপর কিংবা বাতাসে ভাসলেও সূর্যের আলোর সংস্পর্শে এলে করোনাভাইরাস মরে যায়। আর্দ্রতার ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।

এদিকে মানবদেহে জীবাণুনাশক ঢুকিয়ে করোনাভাইরাসের চিকিৎসা করা যায় কিনা; তা গবেষণা করে দেখতে নির্দেশনা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্টে ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, এমন মন্তব্যের পর চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের কঠোর সমালোনার মুখে পড়েছেন তিনি।

হোয়াইট হাউসে দেয়া ব্রিফিংয়ে ট্রাম্পের এই মন্তব্যের পর তা মুহূর্তে তা সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়াও শরীরে অতিবেগুনি রশ্মী বিকিরণেরও প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি। যদিও তার এসব প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

উইলিয়াম ব্রায়ান করোনার ওপর জীবাণুনাশক এবং সূর্যরশ্মি ও তাপের প্রভাব সংক্রান্ত ওই গবেষণার সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, সূর্যর আলো ও তাপে করোনাভাইরাস যে অনেকটাই দুর্বল হয়ে পড়ে, গবেষণায় তা দেখা গেছে।

এছাড়া জীবাণুনাশক ব্লিচ মাত্র ৫ মিনিটের মধ্যে লালা কিংবা শ্বাসযন্ত্রের তরল পদার্থে থাকা ভাইরাসটিকে মেরে ফেলতে পারে।

তিনি জানান, আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহল ভাইরাসকে আরও দ্রুত কাবু করতে পারে।

ট্রাম্প এরপর গবেষকদের করোনাভাইরাস চিকিৎসায় জীবাণুনাশক ও অতিবেগুনি রশ্মি প্রয়োগ করা যায় কিনা; তা খতিয়ে দেখতে অনুরোধ করেন।
-যমুনা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •