অন্যান্য বছরের ন্যায় এ বছর ও বাংলাদেশ সহ সমগ্র বিশ্বে রহমত , মাগফেরাত ও নাজাতের মহান বার্তা নিয়ে মাহে রমজান আমাদের কাছে সমাগত । একটি সম্পূর্ণ ভিন্ন প্রেক্ষাপটে এবারের রমজান পালন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সহ সমগ্র বিশ্ববাসী । বৈশ্বিক করোনা মহামারিতে সমগ্র বিশ্ব আজ স্থবির। বন্ধ হযে গেছে মানুষের স্বাভাবিক সব কর্মকান্ড । বিশ্বে এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা এক লক্ষ তিরাশি হাজার। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২৬ লক্ষ। ২১০ টি দেশ আক্রান্ত । দেশে এ পযর্ন্ত ১২৭ জন লোক মারা গেছেন ।

রমজান মাস একটি বিশেষ মযার্দা পূর্ণ মাস । এ মাসে আল্লাহ সুবহানা ওতায়ালা মহা গ্রন্থ আল-কুরআন নাজিল করেন। এ প্রসংগে আল্লাহতালা কুরআনে বলেন –- ’’ রমজান মাস হলো সে মাস , যাতে অবতীর্ন করা হয়েছে কুরআন , যা মানুষের জন্যে হেদায়াত এবং সত্য পথ যাত্রীদের জন্যে সুস্পস্ট পথ নির্দেশ , আর ন্যায় ও অন্যায়ের মধ্যে পার্থক্য বিধানকারী ।” রমজান মাসের রোজার অপরিহার্য্যতা সম্পর্কে আল্লাহতালা কুরআনের আরেক জাগায় ইরশাদ করেন – – হে ঈমানদারগন তোমাদের উপর রোজা ফরজ করা হয়েছে , যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তী লোকদের উপর যাতে করে তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পার ।

হযরত আবু হোরায়রা (রা:) থেকে বর্ণিত আছে , রাসুলে পাক (স:) বলেছেন – যে ব্যক্তি ঈমানের সহিত সাওয়াবের উদ্দেশে রমজানের রোজা পালন করবে তার জীবনের অতীত সমস্ত পাপ ক্ষমা করে দেয়া হবে ।

আত্মশুদ্ধি ও আত্ম সংযমের মাস মাহে রমজান । বেশী করে ইবাদাত বন্দেগীর মাধ্যমে তাকওয়া অর্জনের মাস মাহে রমজান । আমরা প্রায় সবাই বর্তমানে গৃহ কোয়ারেন্টাইনে আছি । হাতে প্রচুর অলস সময় । এ সময়টা আমরা কাজে লাগাই, বেশী করে ইবাদাত করি । কোরআন তেলোয়াত করি । নফল নামাজ পড়ি । জিকির আসগার করি । করোনা আক্রান্ত গরীব মেহনতি মানুষকে দান সদকা করি ।

রমজানের গুরুত্বপুর্ণ আমল সমুহকে নিন্মে সংক্ষিপ্ত আকারে বনর্না করা হলো ।

1. রমজানের পবিত্র চাঁদ দেখা ।

2. রোজা রাখা , সিয়াম সাধনা করা ।

3. রাতে তারাবিহ নামাজ আদায় করা ।

4. শেষ রাতে তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করা ।

5. যথা সময়ে ইফতার করা।

6. যথা সময়ে সেহেরী খাওয়া ।

7. মিথ্যা থেকে বিরত থাকা।

8. ঝগড়া বিবাদ না করা ।

9. রোজাদারকে ইফতার করানো ।

10. কুরআন তেলোয়াত করা , অর্থসহ বুঝে পড়ার চেস্টা করা । আমল করা ।

11. দান খয়রাত করা ।

12. মেসওয়াক করা ।

13. ওমরাহ করা ।

14. শেষ ১০ দিনে বেশী করে ইবাদাত করা ্ ।

15. শবে কদর তালাশ করা , বেশী করে ওই রাতে ইবাদাত করা ।

16. ইতেকাফ করা ।

17. ফিতরা দেয়া ।

18. বেশী করে তাওবা করা ।

19. বেশী করে জিকির করা ।

20. জাহান্নাম থেকে মুক্তির জন্যে কান্নাকাটি করা ।

সংকলনে : রশীদ আহমেদ চৌধুরী , আয়কর আইনজীবি , চট্রগ্রাম ।

মোবাইল : ০১৮৩২৮৭৫৬০৬
ই-মেইল [email protected]

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •