অনলাইন ডেস্ক : বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে প্রায় দু’লাখ মানুষ প্রাণ হারালেন। সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যাও ২৭ লাখ ১৬ হাজারের বেশি। ২৪ ঘণ্টায় সাড়ে ৬ হাজার মৃত্যু দেখলো বিশ্ব। আরও ৮৫ হাজারের মতো মানুষের শরীরে মিলেছে ছোঁয়াচে ভাইরাসটি। যারমাঝে, যুক্তরাষ্ট্রেই মারা গেলেন দু’হাজারের বেশি; নতুনভাবে আক্রান্ত ৩১ হাজারের অধিক।

কোভিড নাইনটিন পরিস্থিতি মোকাবেলায় বৃহস্পতিবারই ৪৮৪ বিলিয়ন ডলারের সহায়তা বিলে অনুমোদন দিলো মার্কিন কংগ্রেস।

এদিকে, ব্রিটেনে প্রথমবারের মতো মানব শরীরে শুরু হলো পরীক্ষামূলক টিকার প্রয়োগ। দেশটিতে একদিনের হিসাবে কিছুটা কমে প্রাণহানি দাঁড়ালো ৬৩৮ জনে।

ইউরোপীয় অঞ্চলের পরিচালক হ্যান্স ক্লুগ (ডব্লিওএইচও) জানান, ইউরোপের দেশগুলোয় ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে ২২শ’র মতো মানুষের প্রাণহানি রেকর্ড করা হয়েছে। প্রধান দেশগুলোয় মে মাসের প্রথম সপ্তাহেই শিথিল হবে লকডাউন।

তিনি আরও জানান, করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ বা কমানো গেছে, সবদিক থেকে এটা ভালো সংকেত। কিন্তু আত্মতুষ্টিতে ভুগে সবচেয়ে বড় ভুল করছি আমরা। কোনভাবেই এখনো নিজেদের নিরাপদ বা সুরক্ষিত দাবি করতে পারে না ইউরোপ। সামাজিক বা শারীরিক দূরত্ব না মানার শিষ্টাচার ঘটাতে পারে ভয়াবহ বিপদ। সুতরাং, এ মুহূর্তে লকডাউন প্রত্যাহার করা উচিৎ হবে না। দেশগুলোকে বুঝতে হবে- পরীক্ষা, আইসোলেশন ও কোয়ারেন্টাইন এখনো জরুরি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •