যমুনা: করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া খুলনা মেডিকেল কলেজের চিকিৎসক ডা. মাসুদ হাসানকে বিমান বাহিনীর বিশেষ হেলিকপ্টারে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরে তাকে মুগদা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম খান যমুনা নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টারে করে ডাক্তার মাসুদ আহমেদকে ঢাকায় আনা হয়েছে। মুগদা জেনারেল হাসপাতালে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা হয়েছে। বিশেষ ব্যবস্থাপনায় হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্সে তাকে তেজগাঁও এয়ারপোর্ট থেকে মুগদা হাসপাতালের নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

গত ১৮ এপ্রিল খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের সহকারী অধ‌্যাপক ডা. মাসুদ হাসানের করোনা শনাক্ত হয়। তিনি মেডিকেল কলেজের আবাসিক ব্যাচেলর কোয়ার্টারে থাকতেন। এরপর থেকে তাকে সেখানেই আইসোলেশনে রাখা হয়। তিনি খুলনা জেলায় শনাক্ত হওয়া দ্বিতীয় করোনা রোগী। তার আগে গত ১৩ এপ্রিল খুলনায় আজিজুর রহমান নামের আরেকজন ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়।

গত ৯ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হন সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন। নিজ ব্যবস্থায় সাধারণ অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে এসে ভর্তি হন তিনি। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৫ এপ্রিল তার মৃত্যু হয়। ডা. মঈন উদ্দিনকে রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাপনায় ঢাকায় না আনার বিষয়টি নিয়ে চিকিৎসকদের অনেকে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। তবে, তার মৃত্যুর পর পরিবারকে সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দেয়া হয় সরকারি-বেসরকারি নানা তরফে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •