গত ২২ এপ্রিল টেকনাফ টুডে এবং প্রবাল নিউজ ডটনেট অনলাইনে প্রকাশিত “হ্নীলায় সীমানা বিরোধের জেরধরে হামলায় আহত-৭” শীর্ষক সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। যা তিলকে তাল বানিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে প্রতিপক্ষকে ঘায়েলের নিষ্ফল চেষ্টা মাত্র।

প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে গত হ্নীলা দক্ষিণ-পশ্চিম ফুলের ডেইল এলাকায় দীর্ঘদিনের আমার জেঠা মৃত সোলতান আহমদের পুত্র আবু তালেব প্রকাশ আশিক্কা, আশিক্কার পুত্র সাইফুল, মৃত সোলতানের পুত্র ছৈয়দ হোছাইন এর সাথে আমার পৈত্রিক বসত-ভিটা নিয়ে বিরোধপূর্ণ অবস্থার সৃষ্টি হলে স্থানীয় একাধিক ইউপি চেয়ারম্যানকে সালিশ দেওয়া হয়। কিন্তু প্রতিপক্ষের লোকজন গ্রামীন আদালতের আইন অমান্য করায় সৃষ্ট সংকট সমাধান হয়নি।

এরই সুত্রধরে গত ২২এপ্রিল সকালে বসত-ভিটার বিরোধ নিয়ে আবারো উভয়পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে দুপুরে চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী এসে এই সমাস্যা সমাধান করার আশ^াস দিয়ে উভয়পক্ষকে শান্ত থাকার নির্দেশ দিয়ে চলে যায়।

চেয়ারম্যান চলে যাওয়ার পর বিরোধীয় জমির মালিকবিহীন মৃত মোঃ হোছনের পুত্র ইসমাঈল, আইয়ুব, রবিউল মোবাশে^র রুবেল, মোশারফ, তোহারুল ইসলাম, উলুচামরী কোনার পাড়ার ছৈয়দ নুরের পুত্র মোঃ নুর, পানখালীর মোহাম্মদ আলীর পুত্র বাবুলসহ একটি গ্রæপ এসে ছৈয়দ হোসাইন গংকে প্ররোচনা দিয়ে আমার পুরুষ শূন্য বাড়িতে ভাংচুর, মহিলা এবং জেঠা আব্দুল হাকিমকে মারধরের খবর পেয়ে জোবায়ের বাঁধা দেন।

তখন উপরোক্তদের হামলায় জোবায়ের রক্তাক্ত হওয়ার পাশাপাশি ফরিদা ইয়াছমিন ও আমি জমিলাকে আহত করে। তখন উপস্থিত স্থানীয় লোকজন ও আমার পরিবারের লোকজন রক্তাক্ত জোবায়েরকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়। এই বিষয়ে আমি বাদী হয়ে টেকনাফ মডেল থানায়

উপরোক্তদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করি। প্রতিপক্ষ এই ঘটনাকে পুঁজি করে নিজের নাক কেটে আমাদের ফাঁসানোর জন্য ইয়াবা কারবারী, জবর-দখলকারীসহ বিভিন্ন অপবাদ দিয়ে বেড়াচ্ছে।

উল্লেখ্য,উপরোক্ত ব্যক্তিরা পূর্বেও শূন্য বাড়িতে মহিলাদের উপর হামলা চালানোর ঘটনায় একটি নারী নির্যাতনের অভিযোগ দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গক্রমে বলা দরকার যে, ছৈয়দ হোছাইনের একটি সুসংগঠিত সন্ত্রাসী বাহিনী রয়েছে। এই বাহিনীর রুবেল, আইয়ুব, সাইফুল, মোশারফ ইয়াবা সেবনে সম্পৃক্ত। তাদের দুঃচরিত্রের কারণে সন্ধ্যার পর কোন মেয়ে একা চলাফেরা করতে পারেনা। তারা সময়-সুযোগে তারা বিভিন্ন অপকর্ম করে বেড়ায়। যা এলাকাবাসীর নিকট স্বীকৃত।

সুতরাং এই ঘটনাটির সুষ্ঠু,নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য এলাকার সুশীল সমাজ, জনপ্রতিনিধি, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সকলের আন্তরিক সহায়তা কামনা করছি।

প্রতিবাদকারী :
জমিলা পারভীন
পিতা:- মোঃ বুজরুক মেহের
সাং:-দক্ষিণ-পশ্চিম ফুলের ডেইল, হ্নীলা, টেকনাফ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •