এস.এম.হারুনুর রশিদ নয়ন:
একদিকে করোনা মহামারীতে যখন সারা বিশ্বের মানুষ আতংকের মধ্যে রয়েছে।ঠিক অপরদিকে চলে আসলো মুসলিমদের সবচেয়ে আনন্দের মাস গৌরবের মাস পবিত্র রমজান।কিন্তু,এই মাস আনন্দের হলেও এখন সেটা আনন্দের নেই।কারণ,দিন দিন বেড়ে চলেছে করোনা মহামারীতে মৃত্যুর মিছিল।এই মহামারী থেকে আমাদের জন্মভূমি বাংলাদেশও বেছে নেই।জনসংখ্যাবহুল দরিদ্র একটি রাষ্ট্র।যার অধিকাংশ মানুষই কৃষক,শ্রমিক।এই পরিস্থিতিতে তাদের পরিবার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।আমাদের দেশে এমনও অনেক মানুষ আছে,যারা একদিন কাজ না করলে উপোস থাকতে হয়।আবার,এরই মধ্যে চলে আসল রমজান মাস।তাই অসহায় হত দরিদ্রদের মনে একটুও আনন্দ নেই।তাদের মনে একটু আনন্দ এনে দিতে রমজান ইফতার সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচির উদ্যোগ গ্রহণ করে টেকনাফ উপজেলার অবহেলিত উপকূলীয় ইউনিয়ন সৈকত নগরী বাহার ছড়া ইউনিয়নে শিক্ষার উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত আল-আমিন ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ। উক্ত সংগঠনটির সদস্যরা এলাকার হত দরিদ্রদের মাঝে আজ দূর্গম পাহাড়ি পথ পাড়ি দিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করে।উক্ত ইফতার সামগ্রী বিতরণে অংশগ্রহণ করেন,এ.এফ.বি. এর প্রধান উপদেষ্টা,লম্বরী মলকাবানু উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্মানিত সহকারী শিক্ষক,জনাব মোঃ আবু তাহের।বিশেষ উপদেষ্টা ও ৮ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি,নুরুল কবির,বিশেষ উপদেষ্টা,আজিজ করিম,সিনিয়র উপদেষ্টা,হাফেজ মনির আহমদ,দাতা সদস্য হোসাইন আহমদসহ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যবৃন্দ।আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি,শফিউল্লাহ নান্নু,সাধারণ সম্পাদক,রইচ ইসলাম রবিন,সাংগঠনিক সম্পাদক,এস.এম.হারুনুর রশিদ নয়ন,ধর্ম সম্পাদক,হাফেজ আবছার বিন কামাল,ক্রীড়া সম্পাদক,শহিদ নূর,সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক,হোসাইন আল-মুহিত,সদস্য,মাইন উদ্দিনসহ সংগঠনের সকল সদস্যবৃন্দ।যদিও সংগঠনটি শিক্ষার উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়,তবুও এলাকার হত দরিদ্র মানুষ যখন কাজ কর্ম করতে না পেরে কস্টে আছে,আবার সামনে চলে আসলো রমজান।তখন তাদের মানবিক দায়িত্বের কথা ভেবে তারা এলাকার গরীব দুঃখী ২৫ টি পরিবারকে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করেন।আর সংগঠনের সভাপতি ও প্রধান উপদেষ্টা বলেন,”আমরা শিক্ষার উন্নয়নের লক্ষ্যে শীঘ্রই একটি স্কুল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছি,আর এখন যেহেতু করোনা ভাইরাসের কারণে এখন আমাদের এলাকার মানুষ সমস্যায় আছে তাই একটু তাদের আনন্দ দেওয়ার চেষ্টা করলাম।আরো কোনো দানশীল এবং শিক্ষাপ্রেমী কোনো ব্যক্তি যদি চান,আমাদের পাশে থেকে আমাদেরকে সাহায্যের মাধ্যমে দেশ ও জাতির কল্যাণের কাজে অংশ নেবেন।”

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •