মুহাম্মদ আবু বকর ছিদ্দিক, রামু :

রামুতে করোনা প্রতিরোধ সচেতনতায়  সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে নদীর বিভিন্ন স্পট থেকে দিন ও রাতে ড্রেজার মেশিন লাগিয়ে বালি উত্তোলন করে যাচ্ছে ওয়েস্টার্ন কোম্পানী। বিরতিহীন ভাবে ৩-৪টি বড় ড্রেজার লাগিয়ে নদীর বালি তোলা হচ্ছে।

সোমবার (২০ এপ্রিল) এমন অভিযোগ তুলেছেন এলাকাবাসি। তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

তাদের অভিযোগ, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব ও হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে কাজ চালাচ্ছে ওয়েস্টার্ন কোম্পানী। যে কোনো মুহূর্তে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে গেলে এর দায় কে নেবে!

এলাকার সচেতন মহল জানান, নদী খননের নামে বাঁকখালী নদীর পাড় খনন করা হচ্ছে। এভাবে যদি নদীর পাড় খনন করতে থাকে, তাহলে আগামি বর্ষা মৌসুমে ভয়াবহ বন‍‍্যা দেখা দিতে পারে। এমনকি পুরো রামু-কক্সবাজারবাসি হুমকির মুখে পড়তে পারেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, যেখানে নদীর পাড় আছে সেখান থেকেই বালি উত্তোলন করার কারণে যে কোন ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে। বালি উত্তোলনের কারণে পানি নিষ্কাশনের ব‍্যবস্থা না থাকায় লম্বরীপাড়া ঘাটঘরস্থ রাজারকুল এলাকায় আরো একটি নতুন নদী সৃষ্টি হয়েছে এবং নদীর পাড়গুলো পুকুরে পরিণত হচ্ছে।

স্থানীয়দের জোর দাবি, নদীর পাড়ের বালি উত্তোলন না করে বাঁকখালী নদীর মাঝখানে খনন করলে ভাল হবে। তবে খননের কাজ চলবে সরকারের নির্দেশের উপর নির্ভর করে।

তাদের মতে, বতর্মানে ভালোর চেয়ে খারাপের দিক বেশি। কক্সবাজার থেকে রামু পর্যন্ত বাঁকখালী নদী খননের কাজ শুরু হলেও বেপরোয়া ভাবে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে। সরকারের নির্দেশ মতো বালি উত্তোলন কাজ এখনই বন্ধ করা দরকার।

অন্যদিকে জনস্বার্থে রেলওয়ে নির্মাণ কাজ বন্ধ রেখেছে ম্যাক্স কোম্পানী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •