শাহেদ মিজান, সিবিএন:

কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ বাহারছাড়া এলাকা থেকে নারায়ণগঞ্জ থেকে এসে লুকিয়ে থাকা এক জুটিসহ পাঁচজনকে ধরে এনেছে পুলিশ। আজ সোমবার (২০ এপ্রিল) বেলা ৩টার দিকে এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে একদল পুলিশ গিয়ে ওই জুটি এবং তারা যে ঘরে অবস্থান করেছিলেন সেই ঘরের তিনজনকে নিয়ে আসে। পরে জুটির নারীকে আইসোলেশনের পাঠানো হয়েছে।

জেলা জাপা নেতা ও স্থানীয় বাসিন্দা মফিজুর রহমান জানান, ২৩/২৫ বছরের একটি মেয়ে পাড়ার রাস্তায় রহস্যজনক ঘোরাঘুরি করলে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। তাকে চ্যালেঞ্জ করলে তিনি দুইদিন আগে নারায়ণঞ্জ থেকে আসার স্বীকার করেন। এতে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সে শুধু একা নয়, তার সাথে ছেলেও এসেছে। তারা দুবাই প্রবাসী মুফিজুর রহমানের পুত্র স্বাধীনের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। স্বাধীন তাবলীগ করে। নারায়ণগঞ্জে তাবলীগে গেলে সেই পরিচয়ের সূত্রে পালিয়ে এসে তার (স্বাধীনের) বাড়িতে আশ্রয় নেয় এই জুটি। এই জুটি প্রেমিক-প্রেমিকা হতে পারে ধারণা করা হচ্ছে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আশরাফুল আবছার জানান, এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে দক্ষিণ বাহার ছড়ার একটি বাড়িতে অবস্থান নেয়া নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা জুটিসহ পাঁচজনকে নিয়ে আসা হয়ে। পর্যবেক্ষণের জন্য তাদেরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার শাহীন আবদুর রহমান চৌধুরী জানান, পাঁচজনকে নিয়ে আসা হলেও নমুনা পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা জুটির মহিলাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। বাকিদের ছাড় দিয়ে হোম কোয়ারাইন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। আইসোলেশনে রাখা মহিলার নমুনার পরীক্ষার পর অন্যদের জন্য পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •