সরওয়ার কামাল খন্দকার :

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের খরুলিয়া মকবুল সওদাগরপাড়া এলাকায় চলাচলের পথ নিয়ে সন্ত্রাস ও ছিনতাইকারীদের চাঁদা না দেওয়ায় এক ব্যবসায়ী পরিবারকে মারধর করেন এবং এই চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও ছিনতাইকারী  আলীর নেতৃত্বে ৭/৬জন দলবল নিয়ে দা, ছুরি ও ইট-পাটকেল আমার বাড়ীর উপর নিক্ষেপ করে। ঘটনাটি ঘটে মকবুল সওদাগরপাড়ায় শনিবার রাত ৮টায়।

সংগঠিত এ ঘটনায় ব্যবসায়ী মোঃ হোছেনের ছেলে স্কুল ছাত্র ও তার ছোট ভাই সহ অন্তত তিন চার জন আহত হয়েছে। আহত ব্যবসায়ীরা হলেন মোঃ রাসেল, মোঃ হোসাইন, পিতা- খুইল্যা মিয়া, নূরুল হক, পিতা- সোলতান আহমদ, ইব্রাহীম ড্রাইভার, পিতা- সোলাইমান, পিএমখালী, সদর, ককসবাজার। আহত অবস্থায় তাদেরকে সে বাড়ীতে সন্ত্রাসীরা জিম্মী করে রাখেন। ব্যবসায়ীর পরিবার কক্সবাজার মডেল থানাকে ঘটনার ব্যাপারে অবগত করিলে মডেল থানা এসে তাদের আহত অবস্থায় উদ্ধার করেন। আহতরা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। আহত পরিবারেরা জানান আমরা দীর্ঘ দিন যাবত ও বাপ/দাদার আমল থেকে চলাচলের পথ হিসেবে ব্যবহার করে আসিতেছি। কিন্তু আমি পথ দিয়ে আমার বাড়ি করার জন্য ইট বালি কংকর আনা হলে চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও ছিনতাইকারী পরিবার পথের উপর গাড়ি আটকিয়ে টাকা দাবি করে থাকেন। কিন্তু টাকা না দিলে রাস্তার উপর একটি ব্যরিকেট দিয়ে আমরা চলাচল করতে না পারার মত করে। সে ব্যাপারে আমরা প্রতিবাদ করিলে ছিনতাইকারী দল আমার ও আমার পরিবারের উপর অতর্কিতভাবে হামলা করে। সে ব্যাপারে অত্র এলাকার সর্দার মোস্তাক আহমদ থেকে জানতে চাইলে তিনি জানান তারা চিহ্নিত সন্ত্রাসী তারা আমাদের কথা মানে না। ঘটনাটির ব্যপারে কক্সবাজার সদর উপজেলা ইউএনও’র সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি এই ঘটনার ব্যাপারে জানি না। আমি সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নিচ্ছি।

ঘটনায় অভিযুক্তদের সাথে লকডাউন জনিত কারণে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •