নিজস্ব প্রতিবেদক:
উখিয়া উপজেলার গ্রামীণ জনপদে বোরো ধান চাষাবাদের বাম্পার ফলন হয়েছে।
উখিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, বিভিন্ন জাতের ৬ হাজার ২শত হেক্টর জমিতে বোরোধান চাষাবাদ হয়েছে।
তবে, করোনাঝুঁকি ও শ্রমিক সংকটে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা।
উপজেলার কয়েকটি জায়গায় ব্রিধান ২৮ জাতে কিছু রোগ দেখা দিলে কৃষি বিভাগ ও কৃষকের সহযোগিতায় দ্রুত দমন হয়ে যায়।
বলতে গেলে,চলতি বোরো মৌসুমে বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে। পুরোদমে কৃষকরা বাড়িতে ধান তোলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
উপজেলার একাধিক কৃষক বাম্পার ফলনের কথা নিশ্চিত করে বলেন, ঘরে ফসল তোলার এই সময় আমরা আনন্দে কাটানোর কথা থাকলেও নানা দুশ্চিন্তায় আছি।করোনাঝুঁকি শ্রমিক সংকট ও বিরুপ আবহাওয়া আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে।

রাজাপালং ইউনিয়নের ফলিয়াপাড়া গ্রামের কৃষক সোলতান আহাম্মদ বলেন,
এ বছর অনূকূল আবহাওয়া, পর্যাপ্ত পানি সরবরাহ, কৃষি বিভাগের সঠিক নির্দেশনা,ধানে রোগ বালাই কম হওয়ার কারনে বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে।
এদিকে উখিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ দোলন চন্দ রায় বলেন, কৃষকরা সঠিক সময়ে সার,বীজ এবং সেচ দিতে পেরেছে,ফলেই বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে। আগামী বোরো মৌসুমে ব্রিধান ২৮ জাত ব্যবহার না করতে কৃষকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।
তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব সরকার। করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের ক্ষতি সামাল দিতে ভুর্তকি হিসবে দেশের কৃষকদের জন্য ৯ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •