মোঃ রাসেল ইসলাম,বেনাপোল প্রতিনিধি:
যশোরের বেনাপোলে জ্বরে দুই বোন আক্রান্তের পর এক বোনের (১১) মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে শিশুটি করোনায় আক্রান্ত কি না তা কেউ নিশ্চিত করতে পারেনি। বাড়িটি প্রশাসন থেকে লকডাউন করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার ইউসুফ আলি জানান, রবিবার ওখান থেকে নমুনা সংগ্রহ করে টেস্টের জন্য পাঠানো হবে। শিশুটির বাবার বরাত দিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার ইউসুফ আলি বলেন, তিন দিন আগে তার দুই মেয়ের জ্বর সর্দি কাশি হলেও ভয়ে তিনি বিষয়টি কাউকে জানাননি।

স্থানীয় কোয়াক ডাক্তারের কাছ থেকে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। শুক্রবার রাতে বড় মেয়েটা (১১) বারবার বমি ও পাতলা পায়খানা করছিল। তার অবস্থার অবনতি হলে যশোরে সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়।

শুক্রবার রাতে হাসপাতালে নেওয়ার পথে শিশুটি মারা যাওয়ার পর মনিরামপুর উপজেলায় তার গ্রামের বাড়িতে গোপনে দাফন করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল বলেন, বিষয়টি শুনেই তার বাড়িটিকে লকডাউন করা হয়েছে। এবং পরিবারের সদস্যদের বাড়িতেই অবস্থান করতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগকে নমুনা সংগ্রহের কথা বলা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •