এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া:
করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধকল্পে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিমিত্তে আজকালের মধ্যে খোলা মাঠে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে চকরিয়া উপজেলা ও পৌরসভার এলাকার সবধরণের কাঁচাবাজার সমুহ। উপজেলার হাট-বাজার গুলোতে বর্তমান প্রেক্ষাপটে ব্যাপক জনসমাগমের উপস্থিতি দেখে সর্বসাধারণের সুরক্ষা নিশ্চিতকল্পে খোলা স্থানে সকল কাঁচাবাজার গুলো সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। এ সংক্রান্ত একটি লিখিত আদেশ জারি করেছে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান।

উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা যায়, চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাজারগুলো সরিয়ে স্কুল বা পাশের কোন বড় জায়গায় নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, ‘সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য পৌরশহরের এবং ইউনিয়ন পর্যায়ের কাঁচাবাজারগুলো বড় মাঠে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ এরই আলোকে ‘দুয়েকদিনের মধ্যে এসব বাজার সরিয়ে স্কুল মাঠে নেওয়া হবে। মাঠ নির্ধারণের জন্য মেয়র, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইজারাদারদের সাথে কথা হয়েছে। কেউ আদেশ অমান্য করলে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, সরকারি নির্দেশনার আলোকে চকরিয়ার প্রতিটি জনপদে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টার পর বাড়ির বাইরে বের না হওয়ার যে সিদ্ধান্ত অমান্য করলেও তার বিরুদ্ধে নেওয়া হবে বলে। তাই বিষয়টি নিয়ে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

উলে­খ্য, চকরিয়া পৌরসভা এবং ১৮টি ইউনিয়নে সরকারি অনুমোদিত হাট-বাজার আছে ২১টি। এছাড়া গ্রামীণ জনপদের বিভিন্ন স্টেশন কেন্দ্রীয়ক এলাকায় কমবেশি সবজি বাজার আছে আরও ২০-২২টির মতো। এসব বাজারগুলোতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিলো। গতকাল চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত হলো উপজেলার এসব কাঁচাবাজার সমুহ খোলা মাঠে সরিয়ে নেওয়ার। সেইজন্য পৌরসভার মেয়র, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছাড়াও বাজার ইজারাদারসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে বিষয়টি সর্ম্পকে উপজেলা প্রশাসন জানিয়ে দিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •