বিয়োগ ব্যথা

প্রকাশ: ১৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:০৩

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


রেজাউল করিম রেজা

চট্টগ্রামের কওমি অঙ্গনের অত্যন্ত সুপরিচিত, চট্টগ্রামের অন্যতম বর্ষীয়ান ও প্রথিতযশা আলেমেদ্বীন, প্রতিভাধর ব্যক্তিত্ব,চকরিয়া ইমাম বুখারী মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আল্লামা হাফেজ মাওলানা মুফতি আব্দুর রহিম বুখারী সাহেব (রহঃ) আল্লাহর ডাকে সাড়া দিয়ে গতকাল দেড়টায় ইহকাল ত্যাগ করেছেন।
ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিঊন।
আমরা হারিয়েছি একজন দক্ষ আলেমকে যা কখনো পূর্ণ হবার নয়। যিনি ১০ বছর বয়সে হাফেজে কুরআন হয়েছেন,যিনি ইন্ডিয়া দারুল উলুম দেওবন্দে দাওরায়ে হাদীসের ফাইনাল পরীক্ষায় মেধা তালিকায় ২য় স্থান অর্জন করেছেন, যিনি বাংলাদেশ সরকারি বোর্ডের কামিল পরিক্ষায় ১ম স্থান অর্জন করেছেন, যিনি ইলমি অঙ্গনে একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র। বিশেষত হাদিস শাস্ত্রে যোগ্যতা ও পাণ্ডিত্য সর্বজনস্বীকৃত ছিল। একজন মেধাবী, দক্ষ মুহাদ্দিস ও প্রতিভাবান আলেম হিসেবে খ্যাত।
তিনি যেমন কওমি অঙ্গনে প্রসিদ্ধ ছিলেন তেমনি আলিয়া অঙ্গনেও প্রসিদ্ধ ছিলেন। গারাঙ্গিয়া আলিয়া মাদরাসায় অনেক ববছর ভাইস প্রিন্সিপ্যাল ও শাইখুল হাদীস ছিলেন।

আর আমি অধম সেই মহান ব্যক্তির নিকট ১৯৯৬ সালের ২৯শে জুন থেকে ২০০৪ সালের ২২শে মে পর্যন্ত ওনার কাছ থেকে দ্বীনি ইলম শিক্ষা গ্রহণ করার সুযোগ হয়েছিল। তিনি আমাকে নিজের কাছে রেখে শুদ্ধ কোরআন তিলাওয়াত শিখাতেন। কখনো মসজিদে কখনো মাদ্রাসায় আবার কখনো হেফজ খানায়।তিনি আমার বোনের ভাশুর হলেও আমি ওস্তাদ হিসাবে দেখেছি। পরে আবার আমার ভাগিনা মাওলানা Mahmudul goni Bokhari এর সাথে তাহার তৃতীয় কন্যার বিয়ে হলে তিনি আমার বেয়াই হন।

পরিশেষে রাব্বে কারীমের কাছে ফরিয়াদ করি, মহান আল্লাহ তা’অালা যেন এই প্রথিতযশা আলেমে দীনের জীবনের ভুলত্রুটি ক্ষমা করে জান্নাতুল ফিরদাউস নসিব করেন এবং এই ক্রান্তিকালে তাঁর শোকাভিভূত পরিবার-পরিজন যে যেখানে আছে তাদের সবাইকে সবরে জামিল দান করেন।
আ-মি-ন ইয়া রব্বাল আ-লামি-ন

লেখক সাংবাদিক, পেকুয়া।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •