সিবিএন ডেস্ক:

সাগরে ভেসে ভেসে ৫৮ দিন চেষ্টা চালিয়েও মালয়েশিয়ায় স্থান না পেয়ে কক্সবাজারের টেকনাফ উপকূলে ফিরে আসা সেই ৩৯৬ রোহিঙ্গাকে জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) বাংলাদেশ কার্যালয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) রাত ৯টার দিকে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৬নং ওয়ার্ডে মেরিন ড্রাইভ রোডের পশ্চিম পার্শ্বে জাহাজপুরা ঘাট এলাকা থেকে ওই রোহিঙ্গাদের উদ্ধার করার পর বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) তাদের ইউএনএইচসিআরে হস্তান্তর করে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড।

এ বিষয়ে কোস্টগার্ড জানায়, মিয়ানমারের ৩৯৬ জন (১৫০ জন পুরুষ, ১৮২ জন নারী, ৬৪ জন শিশু) নাগরিককে একটি বড় ফিশিং ট্রলার থেকে উদ্ধারের পর পুলিশ ও বিজিবির সহায়তায় তাদের ঘিরে রাখা হয়। এসময় উদ্ধারকৃত মিয়ানমার নাগরিকদের খাবার, প্রয়োজনীয় প্রাথমিক চিকিৎসা ও সেবা দেয় কোস্ট গার্ড।

উদ্ধার একজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ৫৮ দিন ধরে ট্রলারটি সাগরে ভাসছিল। উদ্ধারকৃত রোহিঙ্গারা বিভিন্ন ক্যাম্প থেকে মালয়েশিয়া যেতে সমুদ্রপথে যাত্রা করে। কিন্তু মালয়েশিয়ার সমুদ্রসীমায় দেশটির কোস্ট গার্ড তাদের আটক করে কিছু খাবার, পানি ও জ্বালানি দিয়ে ফেরত পাঠিয়ে দেয়। পরে তারা সেখান থেকে চলে এসে মিয়ানমারে প্রবেশের চেষ্টা করলে দেশটির নৌবাহিনী তাদের আটক করে এবং বাংলাদেশের দিকে পাঠিয়ে দেয়।

এরপর আজ রোহিঙ্গাদের ইউএনএইচসিআর বাংলাদেশের নিকট হস্তান্তর করা হয় বলে জানায় কোস্ট গার্ড।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •