কামাল হোসেন, রামু :

রামু উপজেলার দেড় শতাধিক মাদ্রাসা শিক্ষককে মানবিক সহায়তা দিলেন রামু উপজেলা প্রশাসন। উপজেলার ১১ ইউনিয়নের বিভিন্ন মাদ্রাসায় কর্মরত অসচ্ছল শিক্ষকদের মাঝে এই সহায়তা দেয়া হয়।

সম্প্রতি করোনাভাইরাস জনিত সঙ্কটে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ কর্মহীন হয়ে অতিকষ্টে দিনাতিপাত করছে। এমতাবস্থায় অন্যান্য অস্বচ্ছল মানুষের পাশাপাশি উপজেলার বিভিন্ন মাদ্রাসার দেড় শতাধিক শিক্ষকের দোরগোড়ায় মানবিক সহায়তা পৌঁছে দিয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন রামু উপজেলা প্রশাসন।

করোনাজনিত এ সঙ্কট সৃষ্টি হওয়ার পর থেকেই সংক্রমনরোধে উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নে নিরলসভাবে ছুটে চলেছেন রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা। তিনি সতর্কতামূলক নানামুখী পদক্ষেপের সাথে সাথে অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে নিজ হাতে খাদ্যসামগ্রীও পৌঁছে দিচ্ছেন। কোন পরিবারের অসহায়ত্বের খবর পেলে সাথে সাথেই খাদ্যসামগ্রী নিয়ে সেই ঘরের দরজায় হাজির হন। এভাবে নিরবচ্ছিন্ন মানবিক তৎপরতা অব্যাহত রেখেছেন । এ দুঃসময়ে তিনি অস্বচ্ছল মাদ্রাসা শিক্ষকদের কথাও ভুলে যাননি। খবর নিয়ে উপজেলার দেড় শতাধিক মাদ্রাসা শিক্ষকদের ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেন।

রামু লম্বরিপাড়া দারুল কুরআর নুরানি একাডেমির পরিচালক হাফেজ মো. আবুল মন্জুর বলেন, সঙ্কটময় এ সময়ে আত্মসম্মানবোধের কারণে অভাবের কথা প্রকাশ করতে অপারগ আলেম-ওলামাদের পাশে দাঁড়িয়ে ইউএনও মহোদয় মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় ও এনএসআই আবু হানিফ মোহাম্মদ রোবাইদের সমন্বয়ে এ মানবিক উদ্যোগ বাস্তবায়ন হয়েছে। এই দুই হ্নদয়বান মানবিক মানুষকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। পাশাপাশি ইউএনও মহোদয়ের একান্ত সহযোগী হিসেবে উপজেলাজুড়ে অবিরত চষে বেড়ানো সাংবাদিক সোয়েব সাঈদ ও উপজেলা প্রশাসনের এ মানবিক উদ্যোগে যারা একনিষ্ঠভাবে সহযোগিতা করেছেন সকলের প্রতিও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •