মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা

প্রকাশ: ১৬ এপ্রিল, ২০২০ ০২:৩৬ , আপডেট: ১৬ এপ্রিল, ২০২০ ০২:৪২

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


দুর্গত ব্যক্তির উপর পীড়ন বা অত্যাচার তথা যন্ত্রণার উপর যন্ত্রণা বোঝাতে প্রবাদটি ব্যবহৃত।

জন্মসূত্রে আমরা উখিয়া-টেকনাফবাসী পোড়া কপালে।
বাংলাদেশের দক্ষিণপ্রান্তে মায়ানমারের গা ঘেঁষে আমরা বসবাস করি। বাস্তবিক অর্থে আমাদের কোন স্বাধীনতা নেই। নেই বাংলাদেশের মানুষ হিসেবে একটু অধিকার।

২০১৭ সালে রাখাইনে বড় মাপের সহিংসতার পর থেকেই রোহিঙ্গা ঢল নামে বাংলাদেশে। এ সূত্র ধরেই আমরা স্বাধীনতাহীনতায় ভোগছি।
কোথাও যাতায়াত করতে গেলে সীমাহীন হয়রানির শিকার হতে হয়।
অনেকদিন ধরে জন্মনিবন্ধনের সার্ভার বন্ধ। তাদের কারণে এতদাঞ্চলে মোবাইল নেটওয়ার্ক সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত।
একদিকে মাদকের করাল গ্রাস, অন্যদিকে রোহিঙ্গার উপদ্রব। তার উপরে সারাবিশ্বে মহা আতঙ্কের নাম করোনা ভাইরাসঘটিত কোভিড-১৯।
এই ক্রান্তিলগ্নে গেল বুধবার (১৫ এপ্রিল ২০২০) দিবাগত
রাতে নয়টার পর টেকনাফ বাহারছড়া জাহাজপুরা সৈকতে প্রায় চার শতাধিক রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ঘটেছে।
বিভিন্ন সূত্রে প্রকাশ; এই বোটটি মালয়েশিয়াগামী ছিল। হাজার চেষ্টায় মালয়েশিয়ায় ভিড়তে পারেনি। কিছু যাত্রী করোনা আক্রান্ত হলে বোট চালক টেকনাফের উক্ত এলাকায় যাত্রী এনে নামিয়ে দেয়।

আমরা স্থানীয়দের ক্ষোভ চরম পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। এর যৌক্তিক কারণও আছে।
পুরোদেশ লকডাউন। একান্ত প্রয়োজনে বের হলেও অনেকেই হেনস্তার শিকার হচ্ছেন।
তার মধ্যে এতো সংখ্যক করোনা আক্রান্ত (কোস্টগার্ড সূত্রে প্রকাশ) বোঝাই বোট কীভাবে তীরে ভীড়ে?
সবার মুখে তাই একটাই কথা-
অরক্ষিত সীমান্ত জনপদ, অরক্ষিত সীমান্ত। উখিয়া-টেকনাফবাসী বলির পাঁঠা।

খোরশেদ আলম
সহকারী শিক্ষক (গণিত)
রামু ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •