মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

ন্যাশনাল ক্রেডিট এন্ড কমার্স ব্যাংক লি. (এনসিসিবিএল) ও মার্কেন্টাইল ব্যাংক লি. (এমবিএল) কক্সবাজার শাখা বৃহস্পতিবার ১৬ এপ্রিল সীমিত আকারে খোলা থাকবে। ব্যাংক ২ টি’র কর্মকর্তারা সিবিএন-কে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এনসিসিবিএল-এর বাজারঘাটাস্থ কক্সবাজার শাখার কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ আলী জানান, গ্রাহকদের সমস্যার কথা বিবেচনা করে বৃহস্পতিবার ১৬ এপ্রিল এবং সোমবার ২০ এপ্রিল ২ দিন সকাল ১০ টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত তাদের শাখায় সীমিত আকারে লেনদেন চলবে।

এমবিএল এর হোটেল সী প্যালেসস্থ ঝিলংজা শাখার জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা রেজাউল হক জানান, বৃহস্পতিবার ১৬ এপ্রিল এবং রোববার ১৯ এপ্রিল ২ দিন তাদের শাখা খোলা থাকবে। এ ২দিন সকাল ১০ টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত সীমিত আকারে লেনদেন চলবে।

এনসিসিবিএল-এর কক্সবাজার শাখার কর্মকর্তা হাসান মাহমুদ চৌধুরী জানান, তাদের ব্যাংকের চকরিয়া শাখা আগামী সোমবার ২০ এপ্রিল এবং মঙ্গলবার ২১ এপ্রিল ২ দিন খোলা থাকবে। এ ২দিনও সকাল ১০ টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত সীমিত আকারে লেনদেন চলবে বলে জানান তিনি।

উভয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা আরো জানান, গ্রাহকদের জরুরি লেনদেনের কথা বিবেচনা করে ব্যাংক ২টি খোলা রাখতে তাদের নিজ নিজ প্রধান কার্যালয় হতে বাংলাদেশ ব্যাংকে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় অনুমতি নেওয়া হয়েছে।

এদিকে, ব্যাংক ২টি সীমিত আকারে হলেও খোলা রাখায় গ্রাহকগণ বেশ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংক গত ১১ এপ্রিল জারীকৃত এক সার্কুলারে করোনা ভাইরাস জনিত কারণে লকডাউন (Lockdown) করা এলাকায় শুধুমাত্র সরকারি ৬ টি ব্যাংকের শাখা ছাড়া অন্যান্য সব বেসরকারি ব্যাংকের শাখা বন্ধ রাখার নির্দেশনা জারী করে। ফলে লকডাউন (Lockdown) চলা কক্সবাজারে সকল বেসরকারি ব্যাংকের শাখা গুলো গত ১২ এপ্রিল থেকে সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। কক্সবাজারে গত ১২ এপ্রিল থেকে শুধুমাত্র সোনালী ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক ও বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের শাখা গুলো খোলা রয়েছে।

এনিয়ে, কক্সবাজারের প্রথম অনলাইন নিউজ পোর্টাল কক্সবাজার নিউজ ডটকম-সিবিএন-এ “বেসরকারি ব্যাংক গুলো খোলার ব্যবস্থা নিন, নইলে জনদুর্ভোগ বাড়বে” শিরোনামে একটা কলাম প্রচারিত হয়। যাতে কক্সবাজারে বেসরকারি ব্যাংক গুলো খোলা রাখার ব্যবস্থা করতে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে আবেদন জানানো হয়েছিলো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •