সিবিএন ডেস্ক:
করোনা ভাইরাসে মৃতদের স্মরণ করতে প্রথমবারের মত ইতালিতে সরকারি পর্যায়ে কোরআন তেলাওয়াত করা হয়। সোমবার ইতালির কাপরি পৌরসভার আয়োজনে পৌর ভবন পালাচ্ছো দি মার্টিনির সামনে অন্য ভাষাভাষীদের সামনে এ তেলাওয়াত করা হয়।

করোনাভাইরাসে ইতালিতে মৃতের সংখ্যা কোনভাবেই যেন নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। দিনদিন বাড়ছে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা। মৃত্যুর সংখ্যা ২১ হাজার ছাড়িয়েছে।

মঙ্গলবার মারা গেছে ৬০২ জন। সোমবার এ সংখ্যা ছিল ৫৬৬ জন, রবিবার ৪৩১ জন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ২১ হাজার ৬৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এদিন নতুন আক্রান্ত ২ হাজার ৯৭২ জন। দেশটিতে গুরুতর অসুস্থ রোগীর সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। গুরুতর অসুস্থ রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ১৮৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১৬৯৫ জন। চিকিৎসাধীন এক লক্ষ ৪ হাজার ২৯১ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এক লাখ ৬২ হাজার ৪৮৮ বলে জানান নাগরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেল্লি।

তিনি বলেন, জনগণকে সুরক্ষা দিতে সরকার করোনা মোকাবিলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে। ফলে এ পর্যন্ত চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৩৭ হাজার ১৩০ জন।

ইতালির ২১ অঞ্চলের মধ্যে লোম্বারদিয়ায় করোনার সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত (মিলান, বেরগামো, ব্রেসিয়া, ক্রেমনাসহ) ১১টি প্রদেশ। আজ এ অঞ্চলে মারা গেছে ২৪২ জন, যা গতকালের চেয়ে কম। গতকাল সোমবার এ সংখ্যা ছিল ২৮০ জন। শুধু এ অঞ্চলেই মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে এগার হাজার ১৪২ জনে দাঁড়িয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬১ হাজার ৩২৬ জন। আজ মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১০১২ জন। আজ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৩৪৩। মোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১৭ হাজার ৮২১ জন।

ইতালির প্রাকৃতিক সৌন্দয্যময় দ্বীপ শহর কাপরির পিয়াচ্ছা মার্তিরিতে এ কোরআন তেলাওয়াতের আয়োজন করেন পৌর বিশপ এবং পৌর প্রশাসন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- কাপরি মেয়র আলবের্তো বেল্লেল্লি; বিশপদের পক্ষে ভিকারিও জেনারেল মনসিনর কারোনায় মৃতদের স্মরণে বিভিন্ন ধর্মের পক্ষ থেকে প্রার্থনা ও সম্মান জানানো হয়।

মুসলিম কমিউনিটি হতে ইমাম মুরাদ সেলমি কোরআন তেলাওয়াত করেন, যা ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে। এছাড়াও খ্রিস্টান, ইহুদি, চীন, রোমানিয়ান, মোলদাভিয়ান এবং শিখ সম্প্রদায়ের পক্ষে নিহতদের জন্য বিশেষ বাণী বা প্রার্থনা করা হয়। এ বিষয়টি সকলের কাছে পৌঁছে দিতে ‘ডিয়োসিসি ডি কারপি’ এবং ‘সিটি ডি কারপি’ ফেসবুক প্রোফাইলে ও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে লাইভ প্রচার করা হয়েছিল।

সিবিএন/১৫ এপ্রিল/ইমাম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •