বেদারুল আলম :
সদরের খরুলিয়ায় সরকারের জরুরি সহায়তা নম্বর ৯৯৯ এ ফোন পাওয়ার পর পুলিশ সাহায্য করতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের হামলায় এসআই সহ ৪ পুলিশ আহত হয়েছে। হামলায় কক্সবাজার মডেল থানার এসআই সুমন তালুকদারের পা মারাত্বকভাবে আঘাত প্রাপ্ত হয়েছে। হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আহতদের উদ্ধার করতে যাওয়া কক্সবাজার মডেল থানার অপর টিমের এসআই মোঃ আরিফুল হক। ১৩ এপ্রিল দুপুর ১২ টার দিকে খরুলিয়ার চেয়ারম্যানপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ সন্ত্রাসীদের আটকের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, খরুলিয়া চেয়ারম্যান পাড়ার মৃত ইব্রাহিমের পুত্র মোঃ উল্লাহর জায়গা দখল করতে সন্ত্রাসী ভাড়া করে তার অপর দুভাই শফি উল্লাহ ও ছলিম উল্লাহ। দুপুর ১২ টার দিকে তারা লিংকরোড থেকে ১০/১২ জন সন্ত্রাসী ভাড়া এনে দখল শুরু করলে মোঃ উল্লাহ তার ২ পুেত্রর (চট্টগ্রাম হাসপাতালে ও সেনাবাহিনীতে কর্মরত) সহায়তায় সরকারি সহায়তা নম্বর ৯৯৯ এ ফোন করলে কক্সবাজার মডেল থানা থেকে ফোনকারিদের সহায়তা করতে এসআই সুমন তালুকদারের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছলে সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপর হামলা চালায়। হামলায় নেতৃত্ব দেয় শহিদউল্লাহসহ সাইফুল, শফিউল্লাহ, ছলিম, দেলোয়ার, মনির,নজরুল, আবদুর রহিমসহ ১০/১২ জন সন্ত্রাসী। দখল দারিত্বের জন্য লিংকরোড়ের চিহ্নিত একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ ভাড়া করা হয় বলে একাধিক সুত্র নিশ্চিত করেছেন। সন্ত্রাসীদের হামলায় উল্টো আহত হয় এসআই সুমন, জায়গার মালিক মোঃ উল্লাহ, ও ৩ জন কনস্টেবল । পরে কক্সবাজার মডেল থানা থেকে এস আই আরিফের নেতৃত্বে আরো একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এসআই আরিফ বলেন, সুমন তালুকদারের পায়ে মারাত্বক আঘাত রয়েছে ,পাশাপাশি ৩ জন কনষ্টেবল ও গুরুতর আহত হয়েছে। সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে পালিয়ে গেছে বলেও জানান আরিফ।

এ ঘটনায় সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কিনা জানার জন্য কক্সবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আবু মোঃ শাহজাহান কবিরের বক্তব্য জানার জন্য বেশ কয়েকবার মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয় মোবাইল রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। খরুলিয়ায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে বলে জানান নাম প্রকাশ না করার শর্তে ২ জন জনপ্রতিনিধি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •