কামাল হোসেন, রামু:

রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের মনিরঝিল গ্রামে তামাকের তন্দুলে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এলাকাবাসীর সহায়তায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে আশপাশের প্রায় ৩০ টি ঘর। মনিরঝিল ২ নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার আব্দুল মালেক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

১১ এপ্রিল (শনিবার) রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টায় মনিরঝিল ২ নং ওয়ার্ডের মোহাম্মদ ইদ্রিসের ছেলে মোহাম্মদ আক্তার হোসেনের তামাকের তন্দুলে এই অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হয়

এলাকার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মোহাম্মদ আক্তার হোসেনের তার চাষকৃত তামাক পাতা প্রক্রিয়াজাত করনের জন্য তন্দুলে জ্বালানি কাঠ দিয়ে আগুন ধরায়। জ্বলতে জ্বলতে অসাবধানতা বসত আগুন এক একপর্যায়ে তার তন্দুলে লেগে গেলে পার্শ্ববর্তি এক লোকের চোখে পড়ে। ঐ লোকের চিৎকারে আশেপাশের শ’খানেক মানুষ এগিয়ে আসে। মানুষের ঘন্টা খানেক প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে তন্দুটিকে গুড়িয়ে দিয়ে হয়।অল্পের জন্য তন্দুলের আশপাশে থাকা প্রায় ৩০ টির মতো ঘর এই অগ্নিকাণ্ড থেকে রক্ষা পায়। আগুন নেভাতে গিয়ে কয়েক জন লোক আহত হয়েছে । অগ্নিকাণ্ড শুরু হলে রামুর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। ফায়ার সার্ভিস আসতে আসতে এলাকাবাসী আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন বলেও জানা যায়।

এলাকাবাসী আরো জানান, এভাবে লোকালয়ের ভেতরে বাড়ির পাশ ঘেঁষে তন্দুল তৈরি করা তার উচিত হয়নি। এধরণের তন্দুল এলাকায় আরো রয়েছে। বড় ধরনের কোন দুর্ঘটনা ঘটার আগেই এসব তন্দুল আপসারনের জন্য প্রসাশনের কাছে দাবি করেন এলাকাবাসী।

রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা জানান,লোকালয়ের ভেতর তৈরিকৃত তন্দুলের ব্যপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •