সংবাদদাতা:

সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমলের একান্ত রাজনৈতিক সচিব, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রুস্তম আলী চৌধুরী তাঁর পিতার নামে প্রতিষ্টিত স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্টান ‘বাঁচা মিয়া চৌধুরী ফাউন্ডেশন’র পক্ষ থেকে ৪র্থ দফায় ২০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ টাকা সহায়তা প্রদান করেন।

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে বাসটার্মিনালস্থ লারপাড়া নিজস্ব ব্যবসায়ীক কার্যালয়ে পুর্ব লারপাড়া ও পশ্চিম লারপাড়া এলাকার করোনার প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী প্রদান করেছেন।

ত্রাণ বিতরণের সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল বলেন, সমাজের সর্বস্তরের বিত্তবান ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে করোনার মহামারিতে অসহায় মানুষের পাশে রুস্তম আলী চৌধুরীর মত সাহার্য্য নিয়ে এগিয়ে আসার আহবান জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, আমি আমার সাধ্যমত আপনাদের ঘরে ঘরে ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছিয়ে দিবো। কারো কোন সাহায্য লাগলে নিঃসংকোচে আমাকে জানাবেন। আপনারা বাসায় থাকুন, নিরাপদে থাকুন। আপনাদের পাশে আমি ছিলাম, আছি এবং থাকবো।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জেলা শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ঝিলংজার ১নং ওয়ার্ড় আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খাইর, সাধারণ সম্পাদক অমির দাশ, আওয়ামী লীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন ও শফি আলম, সাবেক ছাত্রনেতা ওয়াহিদুর রহমান লিটন, ঝিলংজা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মোহাম্মদ ইলিয়াছ, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ওমর ফারুক, ওয়ার্ড় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. ইদ্রিস ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আনোয়ার, বদিআলম, জসিম, ফজলুল হক, মফিজ, ইকবাল, রায়হান, আমান, আজিজ সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

প্রসঙ্গতঃ ইতোপুর্বে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ১০০০ পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ টাকা সহায়তা প্রদান করেছেন তিনি।

এছাড়াও, করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের কাজে ব্যবহারের জন্য গত ২৪ মার্চ থেকে বাঁচামিয়া চৌধুরী ফাউন্ডেশনের পক্ষ
থেকে ২ টি এ্যাম্বুলেন্স জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে প্রদান করেছেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •