রকিয়ত উল্লাহ, মহেশখালী:

করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প লকডাউন এর দাবিতে বাংলাদেশী শ্রমিক তথা স্থানীয় শ্রমিকদের ধর্মঘট চলছে দ্বিতীয় দিনের মতো। গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুরু হওয়া ধর্মঘট পালন করেছে স্থানীয় শ্রমিকরা। এদিকে স্থানীয় শ্রমিকরা তিন দফা দাবি নিয়ে ধর্মঘট পালন করতেছে। স্থানীয় শ্রমিকদের দাবী গুলো হল ১) বাংলাদেশ সরকারের রুল ফলো করতে হবে। যতদিন লকডাউন ততদিন কাজ বন্ধ করে সেলারি পে করেতে হবে। ২)সরকারের রুল ফলো না করলে, শ্রমিকদের ৩ মাস এর সেলারী দিয়ে বিদায় দিতে হবে। ৩) সরকারি রুল ফলোকরে কাজে নামার পর কোন শ্রমিক কে ছাঁটাই করতে পারবে না। কাটলে ১ মাস আগে জানাতে হবে। এদিকে গত বৃহস্পতিবার সকালে ধর্মঘট পালনের সময় মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প কতৃপক্ষ মিটিং করে জানাবেন বললে ও আজ শুক্রবার সকালে আবার ও কাজ করতে চাপ দে। তাই আজ সকাল থেকে এখনো ধর্মঘট চলছে বলে জানান এক শ্রমিক।

এদিকে সকালে দেখা যায় হুন্দাই কোম্পানির তাদের নিজস্ব গাড়ি নিয়ে ৪০-৫০ জন শ্রমিক নিয়ে চলাফেরা করতে দেখা যায়। এ নিয়ে হুন্দাই কোম্পানি দেশের কোন আইন মানতেছে না। এ নিয়ে ও চলছে ক্ষোভ।এদিকে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানান।

বিদ্যুৎকেন্দ্রে দায়িত্বরত পুলিশ পরিদর্শক শাহাজান জানান, তারা জড়ো হয়ে মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প লকডাউন সহ ৩দফা দাবিতে ধর্মঘট চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা এসে তাদের দাবি গুলো লিখে নিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে সবাইকে নির্দিষ্ট দূরত্বে অবস্থান করে শ্রমিকদের ৩জন প্রতিনিধি নিয়ে কোল পাওয়ার কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলার জন্য অপেক্ষা করতেছি।

এদিকে হুন্দাই কোম্পানির সিকিউরিটি ম্যানেজার বিল্লাল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য না করে মিটিং এ আছি বলে ফোন কেটে দেন।

শ্রমিকরা বলছেন, মিটিং করে কাজ করার জন্য বলে। আর যারা কাজ করবে না তাদেরকে চাকরি ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়েছে। এ অবস্থায় কর্তৃপক্ষের এমন কর্মকাণ্ডে হতাশ শ্রমিকরা। এজন্য প্রশাসনর হস্তক্ষেপ কামনা করেন শ্রমিকেরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •