এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:
চকরিয়ায় বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং কার্যক্রমের আওতায় অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে অহেতুক বাইরে ঘুরাফেরা ও সামাজিক দূরত্ব না মানায় ১৪ জনের কাছ থেকে ছয় হাজার তিনশত টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার ডুলাহাজারা, খুটাখালী ও চকরিয়া পৌর শহরে পৃথক অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তানভীর হোসেন।

এ সময় সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় একটি চায়ের দোকানদারকে দেড় হাজার টাকার এবং অপর একটি ওষুদের দোকানে অতিরিক্ত লোক সমাগম ঘটিয়ে বেচা-বিক্রি করায় ওই দোকানদারকে দেড় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তানভীর হোসেন বলেন, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণ এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং কার্যক্রমের আওতায় উপজেলার ডুলাহাজারা, খুটাখালী ও চকরিয়া পৌর শহরে ভ্রাম্যমান আদালতের পৃথক অভিযান চালানো হয়। এসময় দুইটি দোকানকে তিন হাজার এবং সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে অহেতুক বাইরে ঘুরাফেরা ও সামাজিক দুরত্ব বজায় না রাখায় ১৪জনের কাছ থেকে ছয় হাজার তিনশত টাকাসহ সর্বমোট ৯ হাজার ৩০০শত টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হোসেন আরও বলেন, এ সময় ঘাতক মরণব্যাধী করোনা ভাইরাস থেকে রেহাই পেতে সবাইকে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি বর্তমান প্রেক্ষাপটে সামাজিক বিচ্ছিন্নতা বজায় রাখা এবং বিনা কারনে বাড়ির বাইরে না আসার জন্য সর্বস্থরের জনসাধারণকে পরামর্শ ও নির্দেশনা দেয়া হয়। ভবিষ্যতে এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি। অভিযানে সেনা সদস্য ও পুলিশসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •