মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু, নাইক্ষ্যংছড়িঃ
বান্দবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দোছড়ি ইউনিয়নের বাহির মাঠ হইতে কালুর ঘাট সড়ক বর্ধিত করণ (সম্প্রসারণ) কাজে নিম্নমানের ইট ব্যবহার ও কাজে অনিয়মের অভিযোগে তুলেছে স্থানীয়রা।

স্থানীয় বাসিন্দা নুর মোহাম্মদ, আবদুল্লাহ জানান, করোনা দুর্যোগের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে কৌশলে ম্যানেজ করে এভাবে নরমাল কাজ করছেন ঠিকাদার।

অনিয়মের কথা স্বীকার করেন স্থানীয় ইউপি মেম্বার শফিকুর রহমান।

তিনি জানান, যেখানে ১ নং ইট ব্যবহার করার কথা সে খানে ৩ য় শ্রেণীর ইট দিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও যেখানে সম্প্রসারণ কাজে ডাবল ইট বিছানোর কথা সেখানে এক প্রস্ত ইট বিছানো হচ্ছে। ঠিকাদার আমাদের কথা গায়েও দেয় না।

এবিষয়ে ঠিকাদারকে মুৃঠোফোনে বার বার চেষ্টা করে সংযোগ না পেয়ে উক্ত কাজে উপস্থিত থাকা হেডমেস্ত্রী থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন এসব আমি বলতে পারবনা বলে এ প্রতিবেদককে কোন সৎ উত্তর দেন নি।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা এলজিডি কর্মকর্তা প্রকৌশলী তোফাজ্জল হোসেন ভূইয়া থেকে কত টাকার এই কাজ এবং অনিয়মের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ সড়কটি গত বছর পিচ ঢালা করা হয়েছে। এ বছর সড়কটি দুই পাশে এক ফুট করে বড় করা হচ্ছে। তবে এ কাজে অনিয়ম হবার কথা নয়। তিনি করোনা দুর্যোগের কারনে দেখভাল করতে পারিনি। আপনি যখন বলছেন বিষয়টি দেখবো।

দোছড়ি ইউনিয়ের প্রধান এ সড়কটির কাজে অনিয়ম করায় দুর্নীতিবাজ টিকাদারের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •