মিজবাউল হক ,চকরিয়া :

চুরির অপবাদ দিয়ে মো: ইসমাইল (১৩) নামের এক কিশোরকে হাত-পা বেঁধে অমানষিক নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। পরে পুলিশের সহায়তায় ওই কিশোরকে উদ্ধার করা হয়। বুধবার (১ এপ্রিল) সকাল ১১টার দিকে চকরিয়া পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ডের হাজীপাড়া গ্রামে এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এনিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। ইসমাইল ওই এলাকার জমির উদ্দিনের ছেলে।

ওই কিশোরের পিতা জমির উদ্দিন বলেন, মঙ্গলবার ভোর রাতে একটি বাড়ির চুরির ঘটনা ঘটে। চুরির ঘটনার জের ধরে তার ছেলে ইসমাইলকে ডেকে পাঠান একই এলাকার বখাটে যুবক হাবিবুর রহমান ছেলে মোজাম্মেল (৪০), নাজির হোসেনের ছেলে আমিন ও আশরাফ হোসেনের ছেলে মনির। পরে তারা ইসমাইলকে বাড়ির চুরির অপবাদ দিয়ে একটি গাছের মধ্যে বেঁধে অমানষিকভাবে নির্যাতন করে। তার পুরো শরীরে লাঠি ও রট দিয়ে আঘাত করে। নির্যাতনের একপর্যায়ে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় লোকজন ৯৯৯ কল দিলে চকরিয়া থানার এসআই ইসমাইল পুলিশ দল নিয়ে ঘটনাস্থলে যায়। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। চিকিৎসা শেষে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

তিনি আরও বলেন, নির্যাতনকারী মোজাম্মেল, মোঃ আমিন, মনির, মিলু, আইয়ুব, জাহাঙ্গীর ও মো: রুবেল পূর্বে শত্রুতার জের ধরে আমার ছেলেকে নির্যাতন করেছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি। এসব বখাটে যুবকদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে তিনি জানান ।

এব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি মো: হাবিবুর রহমান জানান, চুরির ঘটনা নিয়ে এক কিশোরকে নির্যাতন করছে এমন সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। পরে ওই ছেলেকে উদ্ধার করা হয়। তাৎক্ষনিক ওই ছেলের বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হয়েছে। ওই কিশোরকে নির্যাতন পূর্বে শত্রুতার জেরে হয়েছে কীনা তা তদন্ত করা হবে বলেও জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •