আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
উপসর্গ ছাড়াই করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে কিন্তু চীন তা স্বীকার করছে না বলে অভিযোগ ছিল খোদ দেশটির মানুষ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের। অবশেষে চীন এ কথা স্বীকার করে বলেছে, গতকাল উপসর্গ ছাড়াই দেশটিতে ১৩০ জনকে করোনায় আক্রান্ত বলে শনাক্ত করেছে তারা। খবর সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, গতকাল বুধবার চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন এ তথ্য প্রকাশ করে। এর আগে করোনা আক্রান্তদের মোট সংখ্যা প্রকাশ করে দক্ষিণ কোরিয়া ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। যাদের মধ্যে অনেকের দেহে করোনার উপসর্গ দেখা যায়নি।

এপর উপসর্গহীন আক্রান্ত ব্যক্তিদের তথ্য প্রকাশের জন্য চীনের ওপরও চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছিল। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন গতকাল বুধবার জানিয়েছে, দেশটিতে উপসর্গহীন করোনায় আক্রান্ত মোট ১ হাজার ৩৬৭ জনকে শনাক্ত করা গেছে। চিকিৎকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন তারা।

চীন জানায়, সোমবার করোনার লক্ষণহীন বা উপসর্গহীন রোগীর সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৫৪১ জন। তাদের মধ্যে ২০৫ জনই বাইরে থেকে এই ভাইরাস বহন করে দেশে নিয়ে আসে। ৩০২ জন চিকিৎসাধীন কিংবা পর্যবেক্ষণে নেই। তাই তাদের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়।

দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানিয়েছে, এখন থেকে উপসর্গহীন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংখ্যা নিয়মিত প্রকাশ করবে তারা। উপসর্গহীন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে মঙ্গলবার শনাক্ত হয় ৩৬ জন। তাদের মধ্যে ৩৫ জনই বিদেশ থেকে আসা।

সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ওয়েনহোং বলেন, এ পর্যন্ত যত মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের ১৮ থেকে ৩১ শতাংশের মধ্যে কোভিড–১৯ রোগের কোনো লক্ষণই ধরা পড়েনি। তবে তিনি জানান, উপসর্গহীন রোগীদের থেকে ব্যাপক হারে কমিউনিটিতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা কম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •