আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
আশঙ্কা ছিল আগেই, এবার তা বাস্তবে পরিণত হতে চলেছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস হানা দিয়েছে ভারতের বাণিজ্যিক শহর মুম্বাইয়ের ধারাভি বস্তিতে। ইতোমধ্যে মারাও গেছেন একজন। তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পরপরই বস্তির আটটি বাড়ি লকডাউন করে দিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

৬১৩ একর জমির ওপর ছড়িয়ে থাকা ধারাভি বস্তিতে প্রায় ১৫ লাখ মানুষের বসবাস। এটিকেই এশিয়ার বৃহত্তম বস্তি হিসেবে ধরা হয়। অত্যন্ত ঘনবসতিপূর্ণ এ এলাকায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এককথায় অসম্ভব। সেখানে করোনার বিস্তার ঠেকানো না গেলে কী ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে তা বলাই বাহুল্য।

জানা যায়, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ধারাভির ওই ব্যক্তিকে মঙ্গলবার প্রথমে সিওন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য কস্তুরবা গান্ধী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্সে তোলার আগেই মৃত্যু হয় তার।

ধারাভি বস্তির বাসিন্দা ওই প্রৌঢ়ের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে গোটা মুম্বাইয়ে। এমনিতেই ভারতে করোনা সংক্রমণের শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। এদিনের ঘটনায় শহরে সংক্রমণের তীব্রতা আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা।

বুধবার ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৪৩৭ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এটাই একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড। এদিন সেখানে মারা গেছেন অন্তত ছয়জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪১।

ভারতীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দেশটিতে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৮৩৪। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৪৩ জন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •