শাহীন আবদুর রহমানঃ
আমরা চাই কি’বা না চাই, মানি কি’বা না মানি, সারাবিশ্ব কিন্তু আজ করোনাময়। আমেরিকার নিউইয়র্ক থেকে শুরু করে বাংলাদেশের শিবচর – নিমিষেই এভাবে সারাবিশ্বে সে ছড়িয়ে পড়েছে, চষে বেড়াচ্ছে দুর্দান্ত প্রতাপে। কোন কুটনৈতিক মারপ্যাঁচ, কোন সীমানা প্রাচীর, কোন এন্টি মিসাইল রাডার কিন্তু করোনার এই বিশ্বভ্রমণে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে নি।

আন্তর্জাতিক শহর হিসেবে কক্সবাজার কিন্তু মোটেই তার বাইরে নয়। সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়া সেই প্রাণঘাতী অণুজীব কিন্তু আমাদের আশেপাশেই ঘোরাফেরা করছে, আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে। এ এক শ্বাসরুদ্ধকর মূহুর্ত। আপনার একটুখানি খেয়ালি আচরণ, একটুখানি অসাবধানতা নিমিষেই গোটা জনপদকে বানিয়ে দিতে পারে মৃত্যুপুরী।

এই মৃত্যুর মিছিল, এই দুষ্ট চক্র ঠেকাতে আপনাকে কিছুই করতে হবে না। শুধু সামনের ক’টা দিন একটু ধৈর্য্য ধরে নিয়ম মেনে বাড়িতে অবস্থান করতে হবে। শুধু এটুকুই।

অল্প কিছুদিন স্বেচ্ছা গৃহবাসে থেকে এই মৃত্যু মিছিল থামাবেন, নাকি কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে, রাস্তায় বেরিয়ে, করোনাকে ঘরে দাওয়াত দিয়ে আনবেন- সিদ্ধান্ত আপনার। এই রুদ্ধদ্বার অবস্থানে তার অনধিকার প্রবেশ ঠেকাবেন, বেঁচে থাকার চেষ্টা করবেন, নাকি তাকে আলিংগন করবেন, স্বেচ্ছায় মৃত্যুর হিমশীতল স্পর্শ অনুভব করবেন- সিদ্ধান্ত আপনার।

ডা. শাহীন আবদুর রহমান চৌধুরী
প্রধান, জরুরি বিভাগ ও
আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও)
জেলা সদর হাসপাতাল, কক্সবাজার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •