রিয়াজ উদ্দিন ,পেকুয়া :

পেকুয়ায় এক মহিলাকে কুপিয়ে জখম করে নগদ ২লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করেছে দুবৃর্ত্তরা। স্থানীয়রা জখমী ওই নারীকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ৩০ মার্চ (সোমবার) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের জালিয়াখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পেকুয়া থানা পুলিশ ওই স্থান পরিদর্শন করেছেন। আহত মহিলার নাম মমতাজ বেগম (৪০)। তিনি ওই গ্রামের সাদেক আলীর স্ত্রী। স্থানীয় সুত্র জানায়, ঘটনার দিন সন্ধ্যার দিকে ৫/৬ জনের দুবৃর্ত্তরা জালিয়াখালী গ্রামের লবণ চাষী সাদেক আলীর বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় ভীতি ছড়িয়ে তারা ছাদেক আলীর বসতবাড়ি ও ঘিরা বেড়া ভাংচুর করে। এক পর্যায়ে বাড়িতে ঢুকে আলমিরা থেকে নগদ টাকা ও স্বর্নালংকার লুট করে। এ সময় ছাদেক আলীর স্ত্রী মমতাজ বেগম এ সব থামানোর কাকুতি করছিলেন। দুবৃর্ত্তরা তাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। ছাদেক আলী জানান, ছবির আহমদ, তার পুত্র ফোরকান, আরমান, বোরহান ও জাফরের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী হারুনসহ দুবৃর্ত্তরা আমার বাড়ি আক্রমন করে। আমার মেয়ে জোবাইদা শাশুড় বাড়ি থেকে বেড়াতে এসেছে। তার স্বর্ণালংকারও তারা নিয়ে গেছে। জখমী মমতাজ বেগম জানান, আমার ২ ছেলে সেকান্দর বাদশাহ ও আবদুল মুবিন ওমান থাকে। ২০ শতক জায়গা ক্রয় করতে ছেলেরা বিদেশ থেকে টাকা পাঠাই। তারা ওই টাকাও ও ২ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করেছে। পেকুয়া থানার ওসি কামরুল আজম জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •