এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:
করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধকল্পে সারা দেশের ন্যায় কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ১৮ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা একযোগে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে।
মঙ্গলবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের বেতুয়া বাজার, বেতুয়া স্টোর স্টেশন, লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের ছিকলঘাট ও কাকারা ইউনিয়নের মাঝের ফাঁড়ি বাজার এলাকায় জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও নিত্যপণ্যের বাজার মনিটরিং কার্যক্রম এবং জনসমাবেশ না করার জন্য গ্রামীণ জনপদের মানুষজনকে সামাজিক বিচ্ছিন্নতায় উদ্বুদ্ধকরণ করা হয়। এ সময় দোকানে মূল্য তালিকা না থাকা, মেয়াদ উত্তীর্ন পণ্য রাখা এবং সরকারি নির্দেশনা না মেনে চা এর দোকান খোলা রাখার অপরাধে ১০টি দোকানদারকে ৪৩৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।
ভ্রাম্যমান আদালতের এ অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: তানভীর হোসেন।
এ সময় উপজেলা স্যানিটারী ইন্সপেক্টর মো: জয়নাল আবেদীন উপস্থিত ছিলেন।
মো: তানভীর হোসেন জানান, উপজেলার বিএমচর, লক্ষ্যার চর ও কাকারা ইউনিয়নে মঙ্গলবার বিভিন্ন স্টেশন ও বাজার এলাকায় জনসচেতনতা বৃদ্ধি, নিত্যপণ্যের বাজার মনিটরিং কার্যক্রম এবং দোকানপাট, বাজার ও খেলার মাঠে জনসমাবেশ না করার জন্য গ্রামীণ জনপদের মানুষজনকে উদ্বুদ্ধকরণ করা হয়। তাছাড়া প্রয়োজন ছাড়া সকলকে ঘরের বাইরে বের না হতে বলা হয় এবং মাঠে ছেলেদের একসাথে খেলতে নিষেধ করা হয়৷
তিনি আরও জানান, বর্তমান প্রেক্ষাপটে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ইস্যুকে ঘিরে কিছু ব্যবসায়ী বাজার মনিটরিং সময় দোকানে মূল্য তালিকা না থাকা, মেয়াদ উত্তীর্ন পণ্য রাখা এবং সরকারি নির্দেশনা না মেনে চা এর দোকান খোলা রাখার দায়ে ১০টি দোকানিকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৪৩৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •