মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

করোনা ভাইরাস জনিত মহাসংকটে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ঘরে ঘরে গিয়ে উপহার সামগ্রী প্রদান করেছেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন।

মঙ্গলবার ৩১ মার্চ জেলা সদর ও শহরের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ঘরে স্বশীররে গিয়ে প্রতিটি মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের সাথে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নির্দেশিত মতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অত্যন্ত হৃদ্যতার সাথে তাদের বিভিন্ন সমস্যা, আবেদন-নিবেদন শুনেন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন। এসময় ১৯৭১ সালের রণাঙ্গনের সৈনিকেরা জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনকে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। তখন জেলা প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বলেন, আপনাদেরকে এটা কোন সহযোগিতা নয়, আপনাদের নিয়মিত খোঁজ খবর রাখা আমার নৈতিক দায়িত্ব। বরং সেই দায়িত্ব যথাযথভাবে হয়ত আমি পালন করতে পারছিনা।

জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা জাতির চেতনার উৎস, সাহসের বাতিঘর, অনুপ্রেরণার মহাসাগর, সমৃদ্ধির সোপান। আপনাদের কারণে জাতি আজ মুক্ত বাতাসে শ্বাস প্রশ্বাস নিতে পারছে। আপনাদের দুঃসাহসিক বীরত্বের কারণে জাতি আজ মুক্ত আকাশে সূর্য উদয় দেখতে পায়। বাংলাদেশ বিশ্বের দরবারে গর্বের সাথে মাথা উঁচু করে দাড়িয়েছে। জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন আরো বলেন, আপনাদের সান্নিধ্যে এসে, ন্যুনতম দায়িত্ব পালন করতে পেরে আমি তৃপ্তি অনুভব করছি। নিজে গৌরবান্বিত হয়েছি। করোনা ভাইরাস জনিত বৈশ্বিক মহামারী সংকট থেকে উত্তরণে জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন এসময় সবার দোয়া ও আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।

জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন আরো বলেন, প্রত্যেক উপজেলার ইউএনও-দের মাধ্যমে জেলার ৩৮৪ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রত্যকের ঘরে দ্রুত উপহার পৌঁছানো হবে ইনশাআল্লাহ। একই সাথে প্রত্যেকের সুখ দুঃখের খবর নিয়ে তার সাধ্যমত সমাধান এবং আমাকে অবহিত করতে প্রত্যেক উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নির্দেশনা দিয়েছি।

জেলা প্রশাসক ও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ কক্সবাজার শহর ও সদর এলাকায় যেসব মুক্তিযোদ্ধাদের ঘরে ঘরে যান, তাদের মধ্যে আছেন, ১৯৭১ সালের জয়বাংলা বাহিনীর কান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেন চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শাহজাহান, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক পৌর চেয়ারম্যান নুরুল আবছার, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ আহমদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা এস,এম কামাল উদ্দিন, বাংলাবাজার মোক্তারকুল এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হক বীর প্রতীকসহ অন্যান্য বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ।

এসময় জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের সাথে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব-উপসচিব) মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট (এডিএম) মোহাঃ শাহজান আলি, কক্সবাজার সদরের ইউএনও মাহমুদ উল্লাহ মারুফ, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটগণ, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কক্সবাজার মুক্তিযোদ্ধা পরিবার কল্যাণ সোসাইটির সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সহ সভাপতি আরটিভি’র স্টাফ রিপোর্টার সাইফুর রহিম শাহীন প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •