খলিল চৌধুরী, সৌদি আরব

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সৌদি আরবে গত ২৯ মার্চ একদিনে আরো ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা কোন দেশের নাগরিক জানা যায় নি।

নতুন এই ৪ জনসহ করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ৮ জনে।

করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরছেন ৬৬ জন।

এখনো হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ১৫ হাজারের চেয়ে বেশি।

নতুন করে আরো ৯৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

গত ২ মার্চ থেকে ২৯ মার্চ পর্যন্ত সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছে ১২৯৯ জন।

এদিকে, করোনাভাইরাস বিস্তার ঠেকাতে গত ২১ মার্চ সমগ্র সৌদি আরবজুড়ে রাত ৭ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত বিশেষ সন্ধ্যা কালীন কারফিউ জারি করে দেশটির সরকার।

করোনাভাইরাস আক্রান্ত সংখ্যা বাড়তে থাকলে সৌদির তিনটি বড় শহর রাজধানী রিয়াদ, পবিত্র মক্কা ও মদিনা কারফিউ পরিবর্তন করে বিকাল ৩ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত করা হয়।

২৮ মার্চ পবিত্র নগর মদিনার অধিকাংশ এলাকা অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ ঘোষনা করে।

সর্বশেষ, সৌদির বাণিজ্যিক রাজধানী জেদ্দা গত ২৯ মার্চ বিকাল ৩ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত লক ডাউন ও কিছু এলাকায় অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ ঘোষণ করা হয়।

গত ১৬ই মার্চ থেকে সরকারী অফিস আদালত পরবর্তী ১৬ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। এবং ২১ মার্চ হতে সৌদি আরবে সকল প্রকার অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট, বাস-ট্রেন এবং ভাড়ায় চালিত ট্যাক্সি পরবর্তী ১৪ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। যা এখন বাড়িয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য করা হয়েছে। পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলে জানিয়েছে সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

তবে, একজন বাংলাদেশী মহিলা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানা গেলেও নতুন আক্রান্তের খবর পাওয়া যায় নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •