সারা বিশ্বে মহামারী করোনা ভাইরাস আতংকে দিন কাটছে মানুষের । এরই মধ্যে সারা বাংলাদেশে লকডাউনে অচল হয়ে পড়েছে মানুষের জীবন যাত্রা । এতে দেশের নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষ গুলো সিমাহীন দুর্ভোগে পড়ে গেছেন । এসব পরিবার গুলোর মাঝে চলছে অভাব অনটন । তাদের মাঝে এক ধরনের অজানা আতংক বিরাজ করছে , এভাবে দেশ লকডাউন হওয়াতে সাধারন কেটে খাওয়া ও দিনমজুর মানুষ গুলো কর্মহীন হয়ে পড়ায় আরো বেশী ভয় ভীতির কাজ করছে এ সব নিম্ন আয়ের পরিবার গুলোর মধ্যে । এরই মধ্যে এসব অসহায় ও হত-দরিদ্র মানুষের কথা চিন্তা করে তাদের ঘরে ঘরে নিজে গিয়ে বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির হলেন ইউনিয়নের জনপ্রিয় ও দানবীর চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ । চেয়ারম্যানের নিজস্ব অর্থায়নে ইউনিয়নে ৫’শ পরিবারের অধিক হত-দরিদ্রদের মাঝে চাউল , ডাল , পিয়াজ ও আলু বিতরণ করা হয়েছে । ২৯ মার্চ রবিবার দিন ব্যাপী চেয়ারম্যান তারেক শরীফ নিজে এসব অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে তার নিজ হাতেই এ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন । এব্যাপারে চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ বলেন , ২৯ মার্চ আমার পিতা শহীদ ওসমান গনী ওসমান চেয়ারম্যানের অষ্টম মৃত্যু বার্ষিকী । এ উপলক্ষে প্রতি বছর আমার পিতার ইছলে ছুওয়াফের জন্য এতীম ও গরীব মানুষের মধ্যে প্রায় ৫০ হাজার লোকের মেজবানের আয়োজন করা হয়ে থাকে । কিন্তু এই সারা বিশ্বে মহামারী করোনাভাইরাস আতংকে মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে । এমতবস্থায় আমার ইউনিয়নের অসহায় মানুষের কথা চিন্তা করে আমার পিতার মেজবান বাতিল করে ৫’শ অধিক পরিবারের মাঝে খাবার বিতরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি । আমি মনে করি মেজবানের চেয়ে এই দুর্যোগ মুহুর্তে অসহায় মানুষ গুলোর মুখে খাবার তুলে দিতে পারায় মহান আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি । খাদ্যসামগ্রী বিতরণে যাতে কোন ধরনের অনিয়ম না হয় এবং যাতে সঠিক অসহায় লোকজনের মধ্যে বন্টন হয় সে জন্য আমি নিজে ঘরে ঘরে গিয়ে এ সব খাদ্য বিতরণ করেছি । চেয়ারম্যান তারেক শরীফ আরো বলেন , দেশের এই দুর্যোগ মুহুর্তে প্রতিটি এলাকার বিত্তবানদের কে অসহায় মানুষের পাশে এসে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া উচিৎ । এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান তারেক শরীফের এই মহতি উদ্যোগকে স্বাগতম জানিয়েছেন ইউনিয়নের সচেতন মহল । তারা বলেন , দেশের প্রতিটি দুর্যোগ পূর্ণমুহুর্তে চেয়ারম্যান তারেক শরীফের দাদা কক্সবাজারের প্রথম শহীদ মোহাম্মদ শরীফ ও তার পিতা শহীদ ওসমান গনী চেয়ারম্যানও সব সময় মানুষের কল্যাণে নিরলস ভাবে কাজ করে গেছেন । তাদের সেই যোগ্য ব্যাক্তির যোগ্য সন্তান তারেক শরীফও তার দাদা ও পিতার স্বপ্ন ও স্মৃতি বাস্তবায়নের জন্য এলাকার কেটে খাওয়া মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত । তারই ধারাবাহিতায় চেয়ারম্যান তারেক শরীফ তার পিতা শহীদ ওসমান গনী চেয়ারম্যানের মেজবান বাতিল করে এলাকার অসহায় মানুষের কথা চিন্তা করে তাদের মুখে খাবার তুলে দিলেন । অপর দিকে এই খাদ্যসামগ্রী পেয়ে অত্যান্ত আনন্দিত হয়েছেন । তাদের এই দুর্দিনে চেয়ারম্যান খাদ্যসামগ্রী নিয়ে এগিয়ে আসায় চেয়ারম্যান তারেক শরীফের জন্য মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করেছেন । এই খাদ্যসামগ্রী পেয়ে অনেকে আবেক আপ্লুত হয়ে বলেছেন , চেয়ারম্যান সাহেব নিজে ঘরে ঘরে এসে যে ভাবে খাদ্য বিতরণ করেছেন তাতে মনে হলো হযরত ওমর (রাঃ) এর যুগের কথা স্বরণ করে দিয়েছেন । তারা বলেন , হযরত ওমর (রাঃ) যেভাবে মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে অসহায় ও ক্ষুধার্ত মানুষের মুখে খাদ্য বিতরণ করতেন , ঠিক তেমনি ভাবে আমাদের চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ ঘরে ঘরে এসে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •