আব্দুস সালাম, টেকনাফ
টেকনাফের সেন্টমার্টিনে বডার্র গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে সীমান্তে বসবাসরত হত-দরিদ্রদের আর্থিক ভাবে সাম্বলম্বীকরণ কল্পে এক হত-দরিদ্র পরিবারে’র মাঝে একটি দুগ্ধ গাভী গরু তুলে দেন। শনিবার বিকালে সেন্টমার্টিন বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন মাঠে টেকনাফ ২ বিজিবি উদ্যোগে আয়োজিত হত-দরিদ্রদে’র মাঝে দুগ্ধ গাভী গরু বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,টেকনাফ ২ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল ফয়সল হাসান খান (পিএসসি)।এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন,অতিরিক্ত পরিচালক (অপারেশন)মেজর মোঃ রাহুল আসাদ,সেন্টমার্টিন বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার ক্যাপ্টেন আহসানুল করিম রাইট প্রমুখ।
বিজিবি সূত্রে জানা যায়,সেন্টমার্টিন ইউনিয়নের কোনারপাড়ার হত-দরিদ্র পরিবার ইমাম হোসেনের ছেলে মোঃ মাহবুবের কাছে বাচুরসহ একটি দুগ্ধ গাভী গরু তুলে দেন প্রধান অতিথি টেকনাফ ২ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ ফয়সল হাসান খান (পিএসসি)।
তিনি জানান,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আলোকিত সীমান্ত প্রকল্প এর আওতায় সীমান্তে বসবাসরত হত-দরিদ্র সমাজকে সাবলম্বীকরণ কার্যক্রমের আওতায় স্থানীয় সেন্টমার্টিনের কোনারপাড়ার বাসিন্দা হত-দরিদ্র এক পরিবার ইমাম হোসেনের ছেলে মোঃ মাহবুবকে একটি দুগ্ধ গাভী গরু দেওয়া হয়। অসহায় ব্যক্তি গাভীর দুগ্ধ বিক্রি করে প্রাত্যহিক জীবিকা নির্বাহ করতে পারবে।সীমান্তে মাদক ব্যবসা ও অন্ধকার জীবনের সাথে জড়িত না হয়ে গাভী সঠিকভাবে পরিচর্যা করে গভীর বংশ বৃদ্ধির মাধ্যমে তার জীবনযাত্রা মান আরও উন্নত করতে পারবে।বিপথগামী ও চোরাচালানের সাথে সম্পৃক্ত ব্যক্তিকে অনুসরণ করে নিজেদের ইতিবাচকভাবে পরিবর্তন করতে পারবে বলে আমরা আশাবাদী।তিনি আরও বলেন, সারাবিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করায় সেন্টমার্টিন দ্বীপের জনসাধারণকে পৃথক পৃথকভাবে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত পরামর্শ প্রদান ও লিফলেট বিতরণ করা হয়।
উপকারভোগী মোহাম্মদ মাহবুব জানান,কোন রকম কষ্টের মাঝে জীবন যাপন করে যাচ্ছি। বিজিবি’র পক্ষ থেকে একটি দুগ্ধ গাভী গরু দেওয়াতে আমি অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছি।আমি বিজিবি’র সকল সদস্য ও কর্মকর্তাদের প্রতি চিরকৃতজ্ঞ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •