মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

জীবন বাজি রেখে, মাতা পিতা, সন্তান স্বজনদের মায়া ত্যাগ করে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় তাঁরাই নিবেদিত। তাঁরাই ঝুঁকি নিচ্ছে। চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে নিরন্তর। অথচ করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর রক্তের বন্ধনে যাঁরা তাঁরাও রোগীর ধারে কাছে ভিড়তে পারছেন না। আর সকল ঝুঁকি, নিরাপত্তাহীনতা, ভীতি উপেক্ষা করে ভয়ংকর করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীকে যাঁরা চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন, তারাই মানুষ, তারাই চিকিৎসক। আর কক্সবাজার জেলায় সেই চিকিৎসকদের সর্বোচ্চ সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত রয়েছেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। এই মানবিক সহযোগিতার কথা ঘোষনা করেছেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, এ মহাদুর্যোগকালে কক্সবাজারের সমস্ত চিকিৎসকদের যেকোন ধরনের সমস্যা জেলা প্রশাসন সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সাথে সমাধানের অগ্রাধিকারভিত্তিতে চেষ্টা করবে। যেকোন যানবাহন সমস্যা, পিপিই, মাস্ক, পরীক্ষার কীট, যেকোন চিকিৎসা সামগ্রীর স্বল্পতা, প্রয়োজনীয় অর্থ, খাওয়া দাওয়া, আবাসন ইত্যাদি সমস্যা জেলা প্রশাসনকে অবহিত করার জন্য জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন সকল চিকিৎসকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন। জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বলেন, চিকিৎসকদের যে কোন চাহিদাই আমার কাছে অগ্রগন্য থাকবে। কারণ চিকিৎসকদের সচল রাখলেই জেলাবাসী এই বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা সুবিধা পাবে। তিনি বলেন, চিকিৎসকদের বিষয় সুনজর রাখার জন্য ইতিমধ্যে জেলার ৮ জন ইউএনও-কে কড়া নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তাদেরকে সকল উপকরণ সরবরাহে ইউএনও গণ অগ্রণী ভূমিকা রাখবেন বলে সিবিএন-এর কাছে জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরো বলেন, চিকিৎসকদের যেকোন সংকট, সমস্যা, অভাব দূর করতে চেষ্টা করাই এখন আমার প।রধন কাজ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •