করোনার আতংকে বন্ধ হয় নি শেভরন, চলছে পরীক্ষা নিরীক্ষা

প্রকাশ: ২৭ মার্চ, ২০২০ ১০:৪৬ , আপডেট: ২৭ মার্চ, ২০২০ ১০:৫১

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


শেভরনে সিটি স্ক্যান করার দৃশ্য। ছবি-শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টার। -সিবিএন।

ইমাম খাইর, সিবিএন:
করোনা ভাইরাসের আতংকে মানুষ যখন স্বেচ্ছায় গৃহবন্দি; বন্ধ রাখা হয়েছে প্রায় ক্লিনিক্যাল প্রতিষ্ঠান, ঠিক তখনও খোলা রয়েছে কক্সবাজারের অন্যতম বেসরকারী পরীক্ষাগার শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরি।

সকাল ৮ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত সব ধরণের পরীক্ষা করা হচ্ছে। রোগিরা সেবা পাচ্ছে আগের মতোই। নেই কোন অভিযোগ।

তবে, নির্ধারিত সনোলজিস্ট কোয়ারেন্টাইনে থাকায় শুধু আলট্রাসনোগ্রাফি হচ্ছে না।

শুক্রবার (২৭ মার্চ) দিবাগত রাত সাড়ে ৮ টার দিকে হাসপাতাল সড়কস্থ প্রতিষ্ঠানটির সেবা কার্যক্রম পরিদর্শনে গেলে দেখা যায়, রোগিদের পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য এন্ট্রি করছেন রিসিপশনিস্ট সামিরা।

শুক্রবার রাত ৯টার রিসিপশন ও ব্লাড কালেকশন বুথ।-ছবি সিবিএন।

পাশে ব্লাড কালেকশন বুথে এক রোগির পরীক্ষার জন্য ব্লাড কালেকশন করছেন সানজিদা। সাথে তাসলিমা নামের আরো একজনকে দায়িত্ব পালনে দেখা গেছে।

এরপর দ্বিতীয় তলায় স্থাপিত ল্যাবে গেলে দেখা মেলে ল্যাব টেকনোলজিস্ট মনসুর আলম, দেলোয়ার হোসাইন সাঈদি, টেকনিশিয়ান বদিউল আলম। তারাও নির্ধারিত কাজে ব্যস্ত।

তৃতীয় তলায় অফিস করতে দেখা যায় পরিচালক (ল্যাব) ডাক্তার নুরুল আলম, পরিচালক (প্রশাসন) রাশেদ মোহাম্মদ আলী, পরিচালক (অর্থ) ডাক্তার বশির আহমদ।

তারা নিজস্ব আঙ্গিকে সব বিভাগ তদারক করেন। জরুরি এই মুহুর্তে সব ধরণের রোগিকে সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট বিভাগে নিয়োজিতদের নির্দেশনা দেন।

কর্মব্যস্ত শেভরন ল্যাবের টেকনোলজিস্ট ও টেকনিশিয়ানরা।-শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দৃশ্য।-ছবি সিবিএন।

জরুরি মুহুর্তের সেবা কার্যক্রম বিষয়ে পরিচালক (প্রশাসন) রাশেদ মোহাম্মদ আলীর কাছে জানতে চাওয়া হয়।

তিনি বলেন, রোগি কম বেশি যাই হোক, মানবিক দৃষ্টিকোন ও সরকারী নির্দেশনা মেনে আমরা প্রতিষ্ঠান খোলা রেখেছি।

শুক্রবার ৩ টি এক্স রে, ৩ সিটি স্ক্যানসহ মোট ১৫ রোগির পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়েছে।
হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কারণে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তা আসতে না পারলেও ক্লিনিক বন্ধ করি নি। জনবল যা আছে তা দিয়ে সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •