মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

“নিজ গৃহে আছেন তো?
আমি এবং পুলিশ সুপার আপনাদের দেখতে আসছি।
বের হচ্ছি সন্ধ্যা ৭ টায়।
ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন।”

এটা কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নিজস্ব ফেসবুকে পেইজে মঙ্গলবার ২৪ মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার পর দেওয়া একটি পোস্ট।

এ পোস্টটি দেওয়ার পর অনেকেই মনে করেছিলেন, মানুষকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত সরকারের জারিকৃত নিয়মনীতি মানার ব্যাপারে ধমকমূলক একটি পোস্ট। যাতে ডিসি এসপি আসছেন মনে করে ব্যবসায়ীরা দোকান ও ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ রাখে, সাধারণ মানুষ বাড়ি ঘরে অবস্থান করে, গণপরিবহন চলাচল না করে ইত্যাদি সচেতনামূলক কাজগুলো করতে থাকে। কারণ এ সংকটময় সময়ে ডিসি এসপি’র মতো জেলার শীর্ষ কর্তাব্যক্তিদের দেখতে আসার সে সময় কোথায়। কিন্তু না, সব ধারণা উল্টো প্রমাণ করে তাঁরা তাঁদের দেওয়া কথা রেখেছেন।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন ও পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার) তাদের দেওয়া কথা মতো মঙ্গলবার ২৪ মার্চ সন্ধ্যা ৭ টার পর থেকে করোনা ভাইরাস (COVID-19) সংক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতামুলকভাবে জনসমাগম পরিহার, অপ্রয়োজনে রাস্তা ঘাটে বের হওয়া, সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা, গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রাখা, অত্যাবশ্যকীয় জরুরি দোকান ছাড়া অন্যান্য দোকান বন্ধ রাখা, বিদেশ ফেরত লোকজনকে কোয়ারান্টাইনে রাখা ইত্যাদির বিষয়ে জণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে শহরের আনাচে-কানাচে ঘুরেছেন। পরিবেশ পরিস্থিতি দেখেছেন। গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন। চষে বেড়িয়েছেন কক্সবাজার শহরের বাহারছরা বাজার, বড় বাজার, কালুর দোকান, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, লিংক রোড, কলাতলীসহ আরো গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। এসব এলাকা পরিদর্শনের সময় করোনা ভাইরাস (COVID-19) প্রতিরোধে সরকারের নিয়ম, নিদের্শনা মেনে চলার উপর গুরুত্বারোপ করে তাঁরা উপস্থিত জনসাধারণকে অবহিত করেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাঃ শাজাহান আলি সহ জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Posted by DC Cox's Bazar on Tuesday, March 24, 2020

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •