সিবিএন ডেস্ক
করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে আমদানি করা পাঁচটি জাহাজ। জাহাজগুলোকে পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণের জন্য কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। এ সময়ে জাহাজগুলো দুই সপ্তাহ গভীর সমুদ্রে অবস্থান করবে। এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে জাহাজ পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পের জন্য সোমবার (২৩ মার্চ) থেকে আগামী ৭ এপ্রিল পর্যন্ত জাহাজ আমদানি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ সময় জাহাজ আমদানির জন্য কোনও অনাপত্তি সনদ (এনওসি) প্রদান করা হবে না। তথ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

তথ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে অবস্থিত জাহাজ পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প এলাকায় ৩৫ হাজার কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিকের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা বিবেচনা করে শিল্প মন্ত্রণালয় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সংক্রান্ত পত্র সোমবার বাংলাদেশ শিপ ব্রেকার্স অ্যান্ড রিসাইক্লার্স অ্যাসোসিয়েশনের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সীতাকুণ্ডে অবস্থিত জাহাজ পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প এলাকায় কর্মরত কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিকদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধিসহ প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ শিপ ব্রেকার্স অ্যান্ড রিসাইক্লার্স অ্যাসোসিয়েশনকে শিল্প মন্ত্রণালয় নির্দেশনা দিয়েছে।

এতে কর্মস্থলে বহিরাগত প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ, হ্যান্ড স্যনিটাইজার ও শরীরের তাপমাত্রা নির্ণয় করে কর্মস্থলে প্রবেশ, মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পরে কাজ করা, সর্দি-কাশি হলে কাজ থেকে বিরত থাকা, কিছুক্ষণ পরপর হাত ধোয়া, অফিস ও বাসা ছাড়া অন্য কোথাও না যাওয়া, ক্যান্টিনে একত্রিত হয়ে না বসাসহ রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •