ইমাম খাইর, সিবিএন
বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে আলোচিত করোনা ভাইরাস। এই মহামারীকে নিয়ে পুরো বিশ্ব বলতে গেলে এখন লকডাউন।
এ প্রকার স্থিমিত হয়ে গেছে পুরো দেশ। অচল হয়ে পড়েছে পর্যটন নগরী কক্সবাজার। লোকে লোকারণ্য থাকা সাগরপাড়সহ পর্যটন স্পটগুলো জনশূন্য। অপ্রয়োজনে মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে না। এসব বিষয়ে জেলা প্রশাসনের কড়াকড়ির পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনও জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চালাচ্ছে।
আজ সোমবার সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন অলিগলিতে পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করতে দেখা গেছে।
এদিকে, করোনা ইস্যুতে সর্বসাধারণকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়েছেন জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাক্তার মোহাম্মদ শাহীন আব্দুর রহমান চৌধুরী।
নিজের ফেসবুক ওয়ালে প্রকাশ করা পুরো স্ট্যাটাসটি পাঠকের সুবিধার্থে উপস্থাপন করা হলো।

প্রিয় ভাই বোনেরা,
এই ক্রান্তিলগ্নে একজন চিকিৎসক হিসেবে আপনাদের যেই সহযোগিতা টুকু চাই-
🌷 চিকিৎসা ও এই সংক্রান্ত পরামর্শ দেয়ার ব্যাপারটা আপাতত আমাদের উপর ছেড়ে দিন। আপনি এবং আপনার আশেপাশের সবাই আমাদের দেয়া পরামর্শ ও শিষ্টাচার মেনে চলা নিশ্চিত করুন।

🌷 জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কোন অবস্থাতেই ঘর থেকে বের হবেন না। বের হলেও অযথা সময় নষ্ট না করে দ্রুত বাড়ি ফিরে যান।

🌷 আপনার আশেপাশে বিদেশ ফেরত কেউ থাকলে তাকে ঘরে অবস্থান করতে বাধ্য করুন। প্রয়োজনে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা নিন।

🌷কোন অবস্থাতেই বিদেশ ভ্রমণ বা সংস্পর্শে আসার ইতিহাস গোপন করে হাসপাতালে বা চেম্বারে চিকিৎসা নিতে আসবেন না। এতে করে চিকিৎসক সহ অসংখ্য লোক আপনাকে সেবা প্রদান করতে গিয়ে চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ে যাবে। ইতিমধ্যেই অসংখ্য চিকিৎসক চিকিৎসা প্রদান করতে গিয়ে কোয়ারেন্টাইন এ আছেন এবং দুইজন চিকিৎসক জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন।

🌷এই মূহুর্তে আমরা অত্যন্ত শারীরিক ও মানসিক চাপের মধ্যে আছি। এই দুঃসময়ে সদর হাসপাতালে প্রতিদিন ৬০-৭০ জন মারামারি রোগের চিকিৎসা করা রীতিমতো আমাদের সাধ্যের বাইরে। তাই করোনা পরিস্থিতি উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত আপাতত মারামারি করা থেকে বিরত থাকুন।

🌷যেইসব রোগে আপাতত ক্ষতি বা মৃত্যুর সম্ভাবনা নেই, সেইসব রোগের জন্য আপাতত হাসপাতালে বা চেম্বারে আসবেন না।

🌷 সাধারণ রোগের জন্য টেলিফোনে চিকিৎসা নিন। চিকিৎসক ফোন রিসিভ না করলে ক্রমাগত ফোন না করে মেসেজ দিয়ে রাখুন। আপনি ছাড়াও তার অন্য রোগী বা অন্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যস্ততা থাকতে পারে, ব্যক্তিগত জীবনের কথা না হয় বাদই দিলাম। আশা করি সুবিধাজনক সময়ে তিনি আপনাকে রেসপন্স করবেন।

🌷আল্লাহর কাছে আমাদের জন্য এবং আমাদের পরিবারের জন্য দোয়া করুন। শেষ মুহূর্ত পর্যন্তও আমরা আমাদের সাধ্য আর সামর্থ্যের সবটুকু দিয়ে আপনাদের জন্যে এই যুদ্ধে নিয়োজিত আছি ইন শা আল্লাহ।

আল্লাহ পাক আপনাদের সবাইকে হেফাজত করুন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •