আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের নতুন কেন্দ্রস্থল ইউরোপের দেশ ফ্রান্সেও মৃত্যুর হার আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। আক্রান্ত ও মৃত্যুতে ইতালি ও স্পেনের পরই ফ্রান্সের অবস্থান। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ১১২ জন কোভিড-১৯ রোগী প্রাণ হারিয়েছেন। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দেড় সহস্রাধিক। খবর আলজাজিরার

স্থানীয় সময় রোববার দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধানের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, একদিনে শতাধিক মৃত্যুর পর সংখ্যাটা বেড়ে হয়েছে ৬৭৪ জন। এছাড়া নতুন করে ১ হাজার ৫৫৯ জন করোনায় আক্রান্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ১৬ হাজার ১৮টি। প্রতিনিয়তই দেশটিতে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছেই।

গতদিনের মতোই ফ্রান্সে নতুন করে শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশটির সর্বশেষ করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিদিন সংবাদ ব্রিফিং করেন স্বাস্থ্য বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জেরমি সলোমন। তিনি বলেন, ‌‘ভাইরাসটি মানুষকে মারছে এবং মেরেই চলেছে।’

প্রতিদিন ৪ হাজার মানুষের করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, যারা ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সবাই এই হিসাবের মধ্যে পড়ছেন না। ভাইরাসটির সংক্রমণে অসুস্থ হওয়ার পর ৭ হাজার ২৪০ জন মানুষ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বলে জানান তিনি। সবাইকে ধৈর্য্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

গত মঙ্গলবার থেকেই ইতালি, ফ্রান্স ও ইউরোপের আরও কিছু দেশের মতো ফ্রান্সও লকডাউন। খুব প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘরের বাইরে কাউকে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। এদিকে রোববার রাতে দেশটির পার্লামেন্ট জরুরি আইনের ওপর অনুমোদন দিয়েছে বলে জানা গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •