খলিল চৌধুরী, সৌদি আরব

বর্তমানে পুরো বিশ্বজুড়ে আতংকের এক নাম করোনাভাইরাস। এ মরণব্যধি রোগ করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সৌদি আরবে যে কোন সময়ে বিশেষ কারফিউ ঘোষণা করতে পারে।

ইতিমধ্যেই নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকানপাট অর্থাৎ খাবারের দোকান, ফার্মেসি, ইত্যাদি ছাড়া বাকি সবকিছু বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করছে। তবে, কারফিউ’র প্রাথমিক ধাপ হিসেবে আজ থেকে রাত ৮টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত ফার্মেসী ও বাকালা অর্থাৎ সুপারমার্কেট ব্যতিত অন্য সব দোকানপাট বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব সরকার।

এ সবমিলে যে কোন সময়ে বিশেষ কারফিউ ঘোষনা হতে পারে সৌদি আরবে।সৌদি আরবে বর্তমানে শুধুমাত্র খাবারের দোকান, ফার্মেসী, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান, ও সুপারমার্কেট খোলা রয়েছে। তবে, করোনাভাইরাসের দ্রুত বিস্তার থামানোর জন্য এই বিশেষ কারফিউ জারি করার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে সৌদি সরকার।

ইতিমধ্যেই সৌদি আরবে সকল মসজিদে নামাজ পড়ানো সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, এবং কাবাঘরের চারপাশে তাওয়াফ সহ যেকোন প্রকার জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে শপিং মল, পার্ক, এবং সকল বিনোদনের স্থান। যেকোন ক্যাফেটেরিয়া বা রেস্টুরেন্টে বসে খাবার খাওয়া নিষিদ্ধ করে দেয়া হয়েছে, শুধুমাত্র পার্সেল করে খাবার নিতে পারবেন সৌদি অধিবাসীরা।

সর্বশেষ, বর্তমান এ নতুন ঘোষণাতে রয়েছে রেষ্টুরেন্ট বা ক্যাফেটেরিয়াও রাত ৮ টার মধ্যে বন্ধ করে ফেলতে হবে। বন্ধ থাকবে সকাল ৬ টা পর্যন্ত।এছাড়াও সাম্প্রতিক সৌদি আরবের সকল ব্যাংক এর কর্মচারীদের ঘরে বসে কাজ করতে নির্দেশ দিয়েছে সরকার, এবং টাকা-পয়সার সবরকম লেনদেন অনলাইনে করার জন্য সকল নাগরিক এবং প্রবাসীদের পরামর্শ দিয়েছেন। সৌদি আরবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সকল বাস, ট্রেন, ট্যাক্সি, ও অভ্যান্তরীন ফ্লাইট। এবং এসকল পদক্ষেপ নেবার পরেও সৌদি আরবে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছেই।

সর্বশেষ ঘোষনা অনুযায়ী আরো ৪৮ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন করোনাভাইরাসে, এবং এর ফলে সৌদি আরবে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৩৯২ জন ও কোয়ারেন্টাইনে প্রায়া ৫ হাজারো বেশি রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •