শাহেদ মিজান, সিবিএন:

রামুতে পাহাড় থেকে পড়ে এক বন্য হাতির মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। শনিবার (২১ মার্চ) ভোরে উপজেলার খুনিয়াপালং এর পশ্চিম গোয়ালিয়া পাহাড়ি এলাকায় এ মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। মৃত হাতির দাঁত সংগ্রহ শেষে হাতিটি মাটি চাপা দেয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বন বিভাগের কর্মকর্তা ও ভেটেরিনারি সার্জন ঘটনাস্থল উপস্থিত হয়ে মাটি চাপা দিয়েছেন।

খুনিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মাবুদ জানান, ইউনিয়নের পশ্চিম গোয়ালিয়ার পাহাড়ি ছরা সংলগ্ন ধান ক্ষেতে একটি বন্যহাতি মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা। বিষয়টি খবরটি উপজেলা প্রশাসন ও বন বিভাগকে জানানো হয়। ।পরে  রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা, বন বিভাগের কর্মকর্তা ও ভেটেরিনারি সার্জনের নেতৃত্বে একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

রামু উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. রূপন চাকমা জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বন বিভাগের কর্মকর্তার উপস্থিতিতে হাতিটির সুরতহাল রিপোর্ট ও নমুনা সংগ্রহ করেছি। প্রাথমিকভাবে হাতিটি পাহাড় থেকে পড়ে ও অসুস্থ হয়ে মারা যেতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা জানান, হাতিটি যেখানে মারা গেছে সেটি একটি পাহাড়ি এলাকা, আশপাশে কোন বসতবাড়ি ও বিদ্যুৎ নাই। ভেটেরিনারি সার্জন এর নেতৃত্বে একটি টিম মৃত হাতিটির সুরতহাল রিপোর্ট করেছে।

কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির বলেন, মৃত এই হাতিটির অনেক বয়স হয়েছে বলে মনে হয়েছে। ডুলহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের বিশেষজ্ঞ সার্জনের নেতৃত্বে হাতির দাঁত গুলো সংগ্রহ করা হয় এবং হাতিটি ওই স্থানে গর্ত করে মাটি চাপা দেয়া হয়েছে। হাতির পেট ফুলে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। তাই দ্রুত পুঁতে ফেলা হয়েছে। দাঁত গুলো উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ মতো স্থানে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •