‘আস-সালাতু ফি বুয়ুতিকুম’

খলিল চৌধুরী,
সৌদি আরব প্রতিনিধি-

চীন থেকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী রোগ করোনাভাইরাসের কারণে পাকিস্তান, কুয়েত ও আরব আমিরাত আজানের শব্দে পরিবর্তন এনেছিল
সেসব দেশের পাশাপাশি মুসলিম বিশ্বের নাবিক খ্যাঁত দেশ সৌদি আরবের পবিত্র নগরীর মক্কা বায়তুল্লাহ ঘিরে মসজিদুল হেরাম ও মসজিদ নববী ঘিরে মদিনা মানোয়ার আজানের শব্দটা পরিবর্তন হয়েছে।

হাদিসে এসেছে দুর্যোগের কারণে আজানে পরিবর্তন করা যেতে পারে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মুয়াজ্জিনকে তা করতেও বলেছেন। হাদিসে দুটি শব্দ এসেছে। তার একটি হলো ‘সাল্লু ফি বুয়ুতিকুম। আর অন্যটি হলো ‘সাল্লু ফি রিহালিকুম’। পবিত্র মক্কা নগরীর আজানে সাল্লু ফি রিহালিকুম শব্দ উল্লেখ করা হয়েছে।

গত কয়েকদিন আগে কুয়েত এবং আরব আমিরাতে আজানের শব্দ ‘হাইয়্যা আলাস-সালাহ’ পরিবর্তন করে তদস্থলে ‘আস-সালাতু ফি বুয়ুতিকুম’ বলা হয়েছিল।

এবার পবিত্র নগরী মক্কায়ও আজানের শব্দ ‘হাইয়্যা আলাস-সালাহ’ পরিবর্তন করে তদস্থলে ‘সাল্লু ফি রিহালিকুম’ অর্থাৎ ‘তোমরা আবাসস্থলেই নামাজ আদায় করে নাও’ বলে আহ্বান করা হয়। আজানের পরিবর্তিত শব্দ ‘সাল্লু ফি রিহালিকুম’ শব্দটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল ছড়িয়ে পড়ে।

প্রাণঘাতী রোগ করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কুয়েত, আরব আমিরাত, পাকিস্তানের পর পবিত্র নগরী মক্কায় আজানের শব্দ পরিবর্তনে কোনো অসুবিধা নেই। হাদিসের আলোকে দুর্যোগপূর্ণ অবস্থায় আজানের শব্দ পরিবর্তন করা যায়। মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে কুয়েত, আরব আমিরাত, পাকিস্তান ও সৌদি আরবের আজানের শব্দ পরিবর্তন হাদিসেরই আমল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •