আলমগীর মানিক, রাঙামাটি
করোনার ভয়াবহতা নিয়ে উৎকন্ঠিত বাসিন্দারা সকলেই যখন ঘুমে আচ্ছন্ন, ঠিক এমনই গভীর রাতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে রাঙামাটি শহরে অর্ধশতাধিক দোকানঘর সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। শহরের কলেজ গেইট এলাকায় বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার সময় এই অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়। আগুনে প্রায় ৬ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছে ক্ষতিগ্রস্থরা। গভীর রাতের এই দুর্ঘটনার শিকার হয়ে কিছুই রক্ষা করতে নাপেরে সহায়-সম্বল হারিয়ে পথে বসেছে অন্তত অর্ধশত খুচরা ব্যবসায়ি ও তাদের পরিবার।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, রাত সাড়ে তিনটার সময় কলেজ গেইট এলাকার পানাহার হোটেল থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এসময় জ্বালানি গ্যাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়ে মুহুর্তের মধ্যেই চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে আগুনের লেলিহান শিখা। ঘটনার খবর পেয়ে রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট, সেনাবাহিনী, পুলিশ, রেড ক্রিসেন্টসহ স্বেচ্ছাসেবীরা ও স্থানীয়দের সহায়তায় আড়াই ঘন্টা চেষ্ঠা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু এই সময়ের মধ্যেই পুরো বাজারটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন আগুনের ঘটনাস্থলের দোকানগুলোর অধিকাংশই ছিলো চায়ের এবং মুদির দোকান। যার প্রত্যেকটিতেই বিক্রি ও ব্যবহার করা হতো জ্বালানি গ্যাসের সিলিন্ডার। যার কারনে সিলিন্ডারগুলো বিস্ফোরিত হয়ে আগুনের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে আড়াই ঘন্টা সময় লেগেছে।
রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিসের সহকারি পরিচালক রতন কুমার নাথ জানিয়েছেন, পানি স্বল্পতার কারনে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কিছুটা সময় লেগেছে।
তিনি জানান, আগুনে আনুমানিক ৫০টির মতো দোকান পুড়ে গেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে। তদন্ত করে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করবে ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •