প্রতীকী ছবি

অনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের রাস্তায় ঘুরতে দেখলে বাসায় পাঠাতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারকে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশের সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধে আবারও কঠোর নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়। এরপরও কোনো কোচিং সেন্টার খোলা থাকলে মালিকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

আজ বুধবার দেশে প্রথম করোনা রোগীর মৃত্যু ও আরো ১৪ জন সংক্রমণের মধ্যে কোচিং সেন্টার, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের সতর্ক করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার লক্ষ্যে ১৮ মার্চ ২০২০ থেকে ৩১ মার্চ ২০২০ পর্যন্ত সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছিল এবং শিক্ষার্থীরা যাতে বাসায় অবস্থান করে তা নিশ্চিত করতে অভিভাবকদের অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, অনেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক এ ছুটিকে সাধারণ ছুটি হিসেবে গণ্য করে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এমনকি অনেকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ভ্রমণেও যাচ্ছেন সপরিবারে। একই আদেশে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করা হলেও পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে জানা যাচ্ছে কিছু কোচিং সেন্টার তাদের কোচিং কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে ফলে আমাদের শিক্ষার্থী ও সারাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে।

এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া চিঠিতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, কোনো শিক্ষার্থীকে রাস্তায় ঘুরতে দেখলে তাদের বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে। পাশাপাশি, সন্তানদের বাসায় অবস্থান নিশ্চিত করতে অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •