নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজার শহরতলীর লিংকরোড স্টেশনে ছিনতাইকালে আটক ছিনতাইকারীকে ছিনিয়ে নিতে সিএনজি লাইনম্যান নুরুল ইসলামকে ছুরিকাঘাত করেছে কারান্তরীণ খরুলিয়ার দরগাহপাড়ার ইয়াবা ব্যবসায়ী দিদারুল আলমের পুত্র শিপন (১৮)। ছুরিকাঘাতে সিএনজি লাইনম্যান নুরুল ইসলাম গুরুতর জখম হয়েছেন। বুধবার (১৭ মার্চ) আড়াইটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

লিংরোড সিএনজি চালক সমবায় সমিতির সভাপতি আনোয়ার হোসেন জানান, লিংকরোড স্টেশন থেকে এক ছিনতাইকারী এক নারীর ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে পালানোর সময় তাকে আটক করে ফেলে সিএনজি লাইনম্যান নুরুল ইসলাম। এই খবর পেয়ে কারান্তরীণ খরুলিয়ার দরগাহপাড়ার ইয়াবা ব্যবসায়ী দিদারুল আলমের পুত্র শিপনের নেতৃত্বে মোটরসাইকেল বহর নিয়ে ৮/১০ কিশোর এসে আটক ছিনতাইকারীকে কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু তাকে ছাড়তে না চাইলে ইয়াবা ব্যবসায়ী দিদারুল আলমের পুত্র শিপন তার কোমর থেকে ছুরি বের লাইনম্যান নুরুল ইসলামকে শরীরের বিভিন্ন অংশ ছুরিকাঘাত করে ওই ছিনতাইকারীকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ছুরিকাঘাতে লাইনম্যান নুরুল ইসলাম গুরুতর জখম হয়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, খরুলিয়ার দরগাহপাড়ার দিদারুল আলম ছিলেন এক বড়মাপের ইয়াবা ব্যবসায়ী। বহুদিন কৌশলে ইয়াবা ব্যবসা করে বিপুল টাকার মালিক হয়েছেন। কিন্তু গোয়েন্দা তদন্তে তার ইয়াবা ব্যবসার রাজত্ব ধরা পড়ে। এক পর্যায়ে কয়েকমাস আগে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইয়াবা ও অস্ত্রসহ দিদারুল আলমকে গ্রেফতার করে। তিনি বর্তমানে কারাগারে রয়েছে।

স্থানীয়রা আরো জানান, পিতা ধরাপড়ার পর থেকে বেপরোয়া হয়ে উঠে পুত্র শিপন। এলাকার কিছু উঠতি কিশোরদে নিয়ে গড়ে তুলে কিশোর গ্যাং। এই কিশোর গ্যাং ইয়াবা ব্যবসা, ছিনতাই, ইয়াবা সেবন, ইভটিজিংসহ নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে। বর্তমানে এই গ্যাংটি খরুলিয়া ও লিংরোডসহ আশেপাশের এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। তাদের উৎপাতে সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •