এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া :

১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ উপলক্ষে কক্সবাজারের চকরিয়ায় বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে সরকারি অফিসপাড়া। ব্যতিক্রমী আয়োজনে আলোকসজ্জা করা হয়েছে চকরিয়া সড়ক ও জনপদ বিভাগের অফিস ভবন ও ডাকবাংলোতে।

শনিবার সকাল থেকে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের প্রতিটি অফিস ও অফিসের ভবন গুলোতে ব্যাপক আলোকসজ্জা করা হয়েছে। সন্ধ্যার দিকে উপজেলার প্রতিটি সরকারি অফিস জলমলে রঙ্গিন হয়ে উঠে বর্ণিল আলোকসজ্জায়। মুজিববর্ষকে স্বরণীয় করে রাখতে শনিবার থেকে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুউদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমানের বিশেষ নজরদারিতে উপজেলা পরিষদ ভবনকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। সন্ধ্যার পর আলোতে ভয়ে উঠে উপজেলা পরিষদের প্রাঙ্গন।

একই সঙ্গে সহকারি পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মতিউল ইসলাম ও চকরিয়া থানার ওসি মো.হাবিবুর রহমানের তত্তাবধানে নতুনরপে সাজানো হয়েছে থানা ভবনকে।

জাতির পিতার জন্মশত বার্ষিকীতে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের অফিসপাড়া সমুহের মধ্যে সর্বশ্রেণীর মানুষের নজর কেড়েছে চকরিয়া সড়ক ও জনপদ বিভাগের আলোকসজ্জা আয়োজন। কক্সবাজার সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী পিন্টু চাকমার নির্দেশনা মতে চকরিয়া সড়ক বিভাগের উপ-সহকারি প্রকৌশলী আবু আহসান মো.আজিজুল মোস্তাফা মনিটরিংয়ে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে সড়ক বিভাগের চকরিয়া অফিস ভবন ও ডাকবাংলোকে। কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে চকরিয়া শহরের উপকণ্ঠে অফিসটি অবস্থান হওয়ায় সড়কে চলাচলরত নানা শ্রেণী-পেশার মানুষের কাছে বেশ নজর কেড়েছে চকরিয়া সড়ক বিভাগের আলোকসজ্জা আয়োজন।

চকরিয়া সড়ক ও জনপদ বিভাগের শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে নির্বাহী প্রকৌশলী কক্সবাজারের নির্দেশনার আলোকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে সড়ক বিভাগের চকরিয়া অফিস ভবন ও ডাকবাংলোকে। পাশাপাশি রোববার ১৭ মার্চ বিকালে অফিস প্রাঙ্গনে আয়োজন করা হয়েছে জাতির পিতার রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মিলাদ মাহফিল। #

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •