মাহমুদুল করিম, সৌদি আরব থেকে:

দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে ২৯৮ জন কর্মকর্তাকে আটক করেছে সৌদি আরব। আটককৃতদের মধ্যে রয়েছে শীর্ষ কর্মকর্তা, সামরিক ও নিরাপত্তা কর্মকর্তাও।আলআজিরা জানায়, রবিবার দেশটির জাতীয় দুর্নীতিবিরোধী কমিশন (নাজাহা) এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে।

সরকারি অফিসে অনিয়ম ও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে এসব ব্যক্তিদের আটক করা হয়।আটককৃতরা ৩৭৯ মিলিয়ন সৌদি রিয়ালের (১০১ মিলিয়ন ডলার) দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত বলে এক টুইট বার্তায় জানায় নাজাহা।প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ৮ কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে ২০০৫-২০১৫ সাল পর্যন্ত সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পে ঘুষ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে।

এ ছাড়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ২৯ কর্মকর্তা, সেনাবাহিনীর তিনজন কর্নেল, একজন মেজর জেনারেল এবং একজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে আটক করা হয়েছে।এদিকে মার্চের শুরুতে আটক করা হয় সৌদি বাদশাহ সালমানের একমাত্র জীবিত ভাই প্রিন্স আহমেদ বিন আবদুল আজিজ এবং ভাতিজা প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফকে। যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের প্রতিদ্বন্দ্বীদের মধ্যে সবচেয়ে প্রভাবশালী হিসেবে দেখা হয় এই দুইজনকে।

অভিযোগ আনা হয়, যুবরাজের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান চেষ্টা করেছিলেন প্রিন্স আহমেদ এবং বিন নায়েফ। তাদের সঙ্গে আটক করা হয় বিন নায়েফের ভাইসহ বেশ কয়েকজন সামরিক কর্মকর্তাকেও।

এর আগে ২০১৭ সালে দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে আটক করা হয়েছিল বেশ কয়েকজন রাজপুত্রসহ মন্ত্রী, সাবেক মন্ত্রী, রাজনৈতিক ব্যক্তি এবং ধনকুবের ব্যবসায়ীদের।

একটি অভিজাত হোটেলে দীর্ঘদিন ধরে তাদের আটকে রাখা হয়। পরবর্তীতে মুক্তিপণ দিয়ে ছাড়া পান তারা।

বিশ্লেষকদের মতে, নিজের ক্ষমতা সুসংহত করতে দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নামে প্রতিদ্বন্দ্বী ও সমালোকদের আটক ও কোনঠাসা করে রাখছেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •