সংবাদদাতা
ককক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, রামুর গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয় অনেক প্রাচীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সার্বিক ভূমিকা পালন করা হবে। গর্জনিয়া ইউনিয়নসহ কক্সবাজার সদর ও রামু উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে রাস্তাঘাটের উন্নয়নসহ সকল প্রকার প্রয়োজনীয় কাজ আগামী তিন বছরের মধ্যে দৃশ্যমান করা হবে। এমপি কমল বলেন, একজন শিক্ষার্থীর জীবন গঠনে বড় ভূমিকা পালন করতে পারেন একজন শিক্ষকই। সেিই সাথে অভিভাবককে গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা পালন করতে হবে, তবেই সেই শিক্ষার্থী দেশের শ্রেষ্ট নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠবে। শিক্ষকরা হচ্ছেন সু-নাগরিক গড়ার কারিগর। তাদের সম্মান দিতে হবে। শিক্ষককে সম্মান না জানালে জাতি এগোতে পারে না।
শনিবার (১৪ মার্চ) বিকেল চারটা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আয়োজিত- রামুর গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে তিন কোটি টাকায় নির্মিত নতুন একাডেমিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্থর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও গর্জনিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কায়ছার জাহান চৌধুরী।
পোয়াংগেরখিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু মো. ইসমাইল নোমান, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নীতিশ বড়ুয়া, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, গর্জনিয়া উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য হাবিব উল্লাহ চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ আহমদ চৌধুরী, আয়ুব সিকদার, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য মোহাম্মদ ফোরকান, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেন, গর্জনিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি মিজানুর রহমান প্রমূখ।
এদিকে গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি’র আগমনকে ঘিরে তোরণ নির্মাণের পাশাপাশি মূখরিত ছিল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ। নেতাকর্মীরা মিছিল সহকারে প্রিয় নেতাকে বরণ করেন। সে সাথে বিদ্যালয়ে প্রবেশ কালে স্কাউট দলের সদস্যরা সালাম প্রদর্শন করেন। পরে শিক্ষার্থীরা ফুলেল শুভেচ্ছায় সাংসদ কমলকে বরণ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •