আলমগীর মানিক, রাঙামাটি
পিএইচডি করতে যাওয়া এক নারী শিক্ষার্থী রাঙামাটিতে ফিরে আসলে তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছে জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ। কয়েক ঘন্টা পরপরই ২৮ বছর বয়সী উক্ত নারীর সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে সার্বিক বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটির সিভিল সার্জন ডাঃ বিপাশ খীসা। তিনি জানান, রাঙামাটির তবলছড়ি এলাকার ওমদামিয়া হিল এলাকার জনৈক বাসিন্দা স্পেনের বার্সিলোনায় পিএইচডি করার জন্য গিয়েছিলেন। শুক্রবার রাতে আমরা খবর পেয়েছি তিনি রাঙামাটিস্থ নিজ বাসায় উঠেছেন।

বিষয়টি জানার পরপরই আমরা খবর নিয়ে জরুরী মেডিকেল টিমের সদস্যদের তার বাসায় পাঠাই। এসময় তিনি নিজেই নিজের বাসায় স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন বলে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের জানান। মেডিকেল টিমের সদস্যরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা করে তার দেহে করোনা ভাইরাসের কোনো উপসর্গ পাওয়া যায়নি। শনিবার সকালেও তাকে দেখতে গিয়েছে জরুরি রেসপন্স টিমের সদস্যরা। এছাড়াও তার সাথে সার্বক্ষনিকভাবে যোগাযোগ রক্ষা করছে রাঙামাটির স্বাস্থ্য বিভাগ কর্তৃপক্ষ।

সিভিল সার্জন আরও জানান, যারা প্রবাস থেকে ফিরে আসবে তাদের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে এবং তাদের উপর পর্যবেক্ষণ চালানো হবে।তিনি বলেন, যিনি প্রবাস থেকে এসেছেন তিনি সর্ম্পূন্ন সুস্থ। তাকে ১৪দিন একা বাড়িতে থাকতে অনুরোধ করা হয়েছে।

সিভিল সার্জন ডাঃ বিপাশ খীসা জানান, আমরা সংশ্লিষ্ট্য সকল প্রশাসনসহ স্থানীয় সবগুলো সংস্থার সাথে সার্বক্ষনিকযোগাযোগ রক্ষা করছি। জেলায় আগত বিদেশী পর্যটক বা প্রবাসীদের বিষয়েও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। এই ধরনের যে কেউ এখানে আসার খবর পাওয়া মাত্র স্বাস্থ্য বিভাগের জরুরি রেসপন্স টিমের সদস্যরা তার বাসায় গিয়ে প্রয়োজনীয় সেবা নিশ্চিত করবে এবং করোনা ভাইরাসের কোনো উপসর্গ কারো শরীরে পাওয়া মাত্রই ঢাকাস্থ আইইডিসিআর এর সাথে যোগাযোগ করে সংশ্লিষ্ট্য রোগিকে চিকিৎসার জন্যে সেখানে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •